‘চা বিক্রেতা’ এমপি হয়েই কোটিপতি!

 ভোটে জেতার পরই আসল চেহারাটা বেরিয়ে পড়ল। চা বিক্রেতা সংসদ সদস্য রাতারাতি হয়ে গেলেন কোটিপতি। দলের সংসদ সদস্যদের এমন কেচ্ছায় বেকায়দায় তেহরিক-ই-ইনসাফ পার্টি প্রধান ইমরান খান।

পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচনের সময়ে খাইবার পাখতুনখাওয়ার বাজাউর আসনের প্রার্থী গুল জাফর খানকে চা বিক্রেতা বলে প্রচার করেছিল পিটিআই। চা বিক্রেতা হওয়ায় নরেন্দ্র মোদীর মতো গুল জাফর সাড়া ফেলেছিলেন প্রচারে।

মানুষ সমর্থনও করেছিল তাকে। কিন্তু ভোট ফুরাতেই বেরিয়ে পড়ল আসল চেহারা। বাধ সাধল পাক নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া গুল জাফরের আয়ের হিসেব।

নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গুল জাফরের সম্পত্তির মূল্য ৩ কোটি রুপি। দেখা যাচ্ছে গুল জাফরের ১ কোটি টাকার স্থাবর সম্পত্তি রয়েছে। ২টি বাড়ি রয়েছে। ১ কোটি ২০ লাখ টাকা দামের জমি রয়েছে। এক বছরে তার সম্পত্তির পরিমাণ বেড়েছে ১,৮৪,০০০ টাকা।

দেশটি গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ইমরানের দলের টিকিট পাওয়ার আগে গুল জাফর রাওয়ালপিন্ডির এক হোটেলে চা বানাতেন। সেই ছবিও মিডিয়া প্রকাশ করা হয়। এনিয়ে এখন সমালোচনার ঝড় উঠেছে দেশে। ফলে ইমরানের শপথ নেওয়ার আগেই পিটিআইয়ের দিকে আঙুল তুলছে নানা মহল।

এমনিতেই পিটিআইয়ের বিরুদ্ধে নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। জাফর নিজে অবশ্য জনিয়েছেন, চা তৈরি তার পেশা। তবে এমপি হিসেবে তার প্রধান কাজ হবে এলাকায় শিক্ষার প্রসার ঘটানো।

প্রসঙ্গত, আগামী ১৮ অাগস্ট প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে চলেছেন ইমরান খান। তার আগেই ১৩ আগস্ট ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির সভা ডেকেছেন প্রেসিডেন্ট মামনুন হোসেন।

দেশে মোট ১১৬টি আসন পেয়েছে ইমরান খানের পিটিআই। সরকার গঠন করতে গেলে তাকে জোগাড় করতে হবে ১৩৭ সাংসদের সমর্থন। ফলে জোট রাজনীতিতে যেতেই হচ্ছে ইমরানকে। তবে ইমরান ইতিমধ্যেই দাবি করেছেন, পিটিআই ম্যাজিক ফিগার জোগাড় করে ফেলেছে।