প্রকাশ্যে ‘এনগেজমেন্ট রিং’ খুলে ফেললেন প্রিয়াঙ্কা!

ফুলকি ডেস্ক: নিক জোনাসের সঙ্গে কি আদৌ বাগদান হয়েছে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার? গোটা দেশ তো বটেই। বলিউডও এবিষয়ে সন্দিহান। কোনও কোনও সেলেব্রিটি তো প্রিয়াঙ্কাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বসে আছেন।

কিন্তু বাগদানের কথা ক্রমাগত অস্বীকার করে যাচ্ছিলেন প্রিয়াঙ্কা। তবে সম্প্রতি তিনি এনিয়ে মুখ খুলেছেন। কিন্তু প্রিয়াঙ্কার উক্তির থেকেও একটি খবর ঝড়ের গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে। তা হল তাঁর এনগেজমেন্ট রিং।

সম্প্রতি দিল্লি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দেখা গিয়েছিল প্রিয়াঙ্কাকে। কালো শার্ট আর নীল ডেনিমে ক্যাজুয়ালিই বিমানবন্দর থেকে বেরোচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু বেরোনোর সময় নিজের অনামিকা থেকে কিছু একটা খুলে সোজা জিনসের পকেটে পাচার করে দেন তিনি।

হাবভাব দেখে মনে হচ্ছে সেটা বাগদানের আংটি হওয়াই সম্ভব। প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে ছিলেন আরও অনেকে। আর আংটিটিও খুব একটা বড় নয়। ফলে প্রিয়াঙ্কা হয়তো ভেবেছিলেন লোকজনের আড়ালে সারা হয়ে যাবে কাজ। কিন্তু তা আর হল কই? ক্যামেরা ঠিকই ধরে ফেলল প্রিয়াঙ্কার কাণ্ডকারখানা। আর এখন তা সোশাল সাইটে ভাইরাল।

প্রিয়াঙ্কা ও নিকের সম্পর্ক নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই জলঘোলা হচ্ছিল। প্রিয়াঙ্কা মুখ না খোলায় পারদ চড়ছিল আরও। কিন্তু এবার প্রিয়াঙ্কা মুখ খুললেন। কিন্তু বিমানবন্দরের এই কাণ্ডকারখানার তলায় তা চাপা পড়ে গেল তাঁর বক্তব্য। তবে বিস্ফোরক কিছু বলেননি অভিনেত্রী। আর সব সেলেব্রিটিরা যা করেন, তিনিও তাই করেছেন। ব্যতিক্রম কিছু নয়।

অভিনেত্রী বলেছেন, এই যে তাঁকে আর নিককে নিয়ে এক যে কথাবার্তা চলছে, তা তাঁর একেবারেই পছন্দ নয়। তাঁর ব্যক্তিগত জীবন একান্তই তার। সেটি জনগণের চিত্তবিনোদনের বিষয় নয়। নিজের বিষয় ব্যক্তিগত রাখার সম্পূর্ণ অধিকার তাঁর রয়েছে। সেটি কাউকে ব্যাখ্যা করার তাঁর প্রয়োজন নেই। তিনি নিজের মনকে এই বলে প্রবোধ দেন, আজ যা খবর, কাল তা নষ্ট হয়ে যাবে। অতএব এসব এড়িয়ে যাওয়াই ভাল।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে একটি অনুষ্ঠানে নিক-প্রিয়াঙ্কার দেখা হয়। গত বছরই তাদের ডেটিং নিয়েও গুঞ্জন শুরু হয়। তবে প্রথম থেকেই প্রিয়াঙ্কা বিষয়টি নিয়ে কোনও কথাই বলেননি। ধীরে ধীরে তাদের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে একসঙ্গে দেখা যেতে থাকে। আর সেই গুঞ্জন একটু একটু করে সত্যি প্রমাণিত হতে থাকে। এরইমধ্যে নিক-প্রিয়াঙ্কা এনগেজমেন্টেও সেরে ফেলেছেন বলে জানা গিয়েছে।

তবে বছর শেষে নিকের সঙ্গে বাগদান, তাই সেসময় ফ্রি থাকছে ছেড়েছেন ‘ভারত’। এমন কথাই এতদিন শোনা যাচ্ছে টিনসেলের মুখে মুখে। কিন্তু সম্প্রতি সে জল্পনায় পড়লো জল।