সিংগাইরে সিঁধ কেটে শিশু চুরি, পরে উদ্ধার

সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি: হাসপাতাল থেকে শিশু চুরির ঘটনা মাঝে মধ্যে শোনা গেলেও এবার ব্যতিক্রমভাবে শিশু চুরির ঘটনা ঘটেছে মানিকগঞ্জের সিংগাইরে। রবিবার গভীর রাতে পৌর এলাকার বকচর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। অবশ্য পরে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় শিশুটিকে পার্শ¦বর্তী নবাবগঞ্জ থানা এলাকা থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে সিঙ্গাইর থানায় শিশুটির মা রাইবিনা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামীকে আটক করা হয়েছে।

এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, সৌদি প্রবাসি ইমরান খানের স্ত্রী রাইবিনা ১৮ মাসের এক মাত্র শিশুপুত্র ইমার খান রাফিকে নিয়ে তার বাবা এরশাদের বাড়ি বচকর মহল্লায় বসবাস করেন। প্রতিদিনের মত রবিবার রাতে শিশুর মা, খালা ও নানীর সাথে রাফি ঘুমিয়ে ছিল। রাত ৪ টারদিকে রাফির মার ঘুম ভেঙ্গে গেলে রাফিকে বিছানায় না পেয়ে ডাক-চিৎকার করতে থাকেন। এ সময় এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে শিশুটিকে খোঁজাখুজি করেন। এক পর্যায়ে তারা  ঘরের পিছনের দিকে সিঁধ কাটা দেখতে পায়।

পরিবারের দাবি, সিঁধ কেটে শিশু রাফিকে চুরি করা করা হয়েছে। সেই সাথে তাদের পরিবারের ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোনও চুরি হয়েছে। পরে সোমবার শিশুটিসহ চোর আলাউদ্দিন নবাবগঞ্জ থানার পাতিলজাত টেম্পু স্ট্যান্ডে সোমবার বিকেলে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফিরা করছিলো। আর শিশুটিও খুব কান্না করছিলো। বিষয়টি দেখে এলাকাবাসীর সন্দেহ হয়। তারা আলাউদ্দিনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে শিশু চুরির ঘটনা স্বীকার করেন। পরে এলাকাবাসী শিশুটিসহ আলাউদ্দিনকে স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়িতে হস্তান্তর করে। ফাঁড়ি পুলিশ বিষয়টি সিঙ্গাইর থানাকে জানালে তারা শিশুটির মাকে নিয়ে গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার এবং চোর আলাউদ্দিনকে আটক করে সিঙ্গাইর থানায় নিয়ে আসে। পরে রাতে সিঙ্গাইর থানায় শিশুটির মা রাইবিনা বাদী হয়ে মানব পাচার আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আটক আলাউদ্দিন সিঙ্গাইর থানার সাহরাইলের শ্রীপুর এলাকার মৃত মদন মিয়ার এলকার ছেলে।

এলাকাবাসী জানায়, আটক আলাউদ্দিনের শিশুটির মায়ের পরিবারের সঙ্গে যাতায়াত ছিলো। এটা শুধু কোন চুরির বিষয় না, পিছনে ভিন্ন কিছু থাকতে পারে।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। চুরি হওয়া শিশুটিকে উদ্ধার করে জড়িত ব্যক্তিকে আটক করে থানায় মামলা নেয়া হয়েছে।