শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে রাজধানীতে ২৭ মামলা, গ্রেপ্তার ১১

স্টাফ রিপোর্টার : নিরাপদ সড়কের দাবিতে গত আটদিন ধরে চলা শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় গাড়ি ভাংচুরসহ বিভিন্ন অভিযোগে মোট ২৭টি মামলা হয়েছে, গ্রেপ্তার করা হয়েছে ১১ জনকে। রোববার বিকাল পর্যন্ত এসব মামলা হয় বলে ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (ক্রাইম) মো. মুনতাসিরুল ইসলাম জানিয়েছেন। তবে “মামলা ও গ্রেপ্তারের সংখ্যা বাড়তে পারে,” বলেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পুলিশের মিরপুর ও উত্তরা বিভাগে ৩টি করে, ওয়ারী বিভাগে ২টি, রমনা ও মতিঝিল বিভাগে ৬টি করে মামলা হয়েছে। এ ছাড়া শাহবাগ, তেজগাঁও, লালবাগ ও গুলশান বিভাগে মামলা হয়েছে একটি করে।

মামলাগুলোতে আসামি কারা জানতে চাইলে নাম প্রকাশ অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, “ছোট ছোট শিক্ষার্থীরা তো আর গাড়ি ভাংচুর, মারামারি করেনি। এখানে তৃতীয়পক্ষ ঢুকে ভাংচুর ও মারামারিসহ পুলিশের ওপর হামলা করেছে। সুতরাং ওইভাবে তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

গত ২৯ জুলাই বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় দুই ছাত্রছাত্রীর প্রাণহানির পর ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখান; ভাংচুর করা হয় বেশকিছু গাড়ি। এরপর নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন দেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়ে। এর মধ্যেই গত শনি ও রোববার ঢাকার ধানম-িতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংঘাতের ঘটনাও ঘটে। রোববার শাহবাগে গাড়ি ভাংচুরের ঘটনায় একটি মামলা এবং ছয়জনকে আটক করা হয়েছে।

শাহবাগের ওসি আবুল হাসান বলেছেন, আটকদের স্বজনদের খবর দেওয়া হয়েছে। স্বজনরা আসলেই তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে। তবে আসামির সংখ্যা জানাননি ওসি হাসান। শনিবার জিগাতলায় মারামারির ঘটনায় মামলা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার বলেন, আওয়ামী লীগ কার্যালয় ও বিজিবি গেইট ভাংচুরের ঘটনায় মামলা হবে।