মায়ের দাবি—-মুহাম্মদ ইসমাঈল

 

 

মাকে আমার খুব মনে পড়ে

জানি না মা কেমন আছে

মাকে দেখি না অনেকদিন থেকে

একসময় মায়ের বকুনি ভালো লাগত না।

অহদিন অহরাত্র মাকে মনে পড়ে

মনে পড়ে মায়ের আত্মচিৎকারের কথা

যখন মায়ের গর্ভে ছিলাম

তিনটি পর্দা ভেদ করে মায়ের পেট থেকে এসেছি।

প্রথম পর্দা মায়ের ফুল

দ্বিতীয় পর্দা জরায়ুর

তৃতীয় পর্দা পেটের পর্দা

ফেরেস্তাকে যখন জিজ্ঞাস করেছিলাম

আমি তো বের হতে পারি না।

ফেরেশতা বলল লাথি মার

প্রথম পর্দা ফেটে গেল

তারপর ও বের হতে পারিনি

আবার ফেরেশতাকে বললাম

আমি দুনিয়াতে আসবো

ফেরেশতা বলল, লাথি মার।

তারপর ও বের হতে পারিনি

শেষবার ফেরেশতাকে বললাম

আমি দুনিয়াতে আসবো

কিভাবে আসবো বলো

ফেরেশতা বললো

কলিজায় লাথি মার।

প্রসব যন্ত্রণা বেগতীক হারে বাড়ল

আমি দুনিয়াতে আসলাম

এক বালতি রক্ত ঝরিয়ে

মায়ের ব্যথা নেই

সন্তানের মুখ দেখে।

মা আমাকে ক্ষমা করো।

লাথির জন্য ক্ষমা কর্

োকষ্টের জন্য ক্ষমা করো।

রক্ত বের করার জন্য ক্ষমা করো।

দুনিয়ায় আসার জন্য ক্ষমা করো।

মেরাথন দুখের জন্য ক্ষমা করো

মা তুমি যে আমার মা

তোমার ঋণ পৃথিবীর সবকিছু

বিক্রি করিলেও পরিশোধ করিতে পারব না।