বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের প্রথম টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়

 ফ্লোরিডায় অনুষ্ঠিত তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে  ১৯ রানে হারিয়েছে।  এ জয়ের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ চলতি তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে  ২-১ ব্যবধানে জয় লাভ করে।

আর এ জয়ের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ বিদেশের মাটিতে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে সিরিজ জয়ের সাধ পেলো।  এ জয় সাকিব আল হাসানের নামের পাশে নেতৃত্বের ইতিবাচক বিশেষণও যোগ করলো। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশের সিরিজ জেতার ইতিহাস দুর্লভ।

তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে শক্তিশালী ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৮৫ রানের টার্গেট ছুঁড়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেটে ১৮৪ রান করেছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬১ রান করেন লিটন দাস। তার এই ইনিংসে ৩টি ছক্কা ও ৬টি চারের মারা রয়েছে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩২ রান করে অপরাজিত ছিলেন মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ। মাত্র ২০ বলে ১ ছক্কা ও ৪টি চারে এ রান করেন তিনি।

সোমবার (৬ আগস্ট) বাংলাদেশ সময় ভোর ৬টা থেকে ম্যাচটি শুরু হয়। সিরিজি নির্ধারণী এ ম্যাচে দ্বিতীয় ম্যাচের একাদশ নিয়েই মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ।

টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশকে দুর্দান্ত সূচনা এনে দেন ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। তাদের জুটি থেকে ৬১ রান আসে। এরপর ব্যক্তিগত ২১ রানে সাজঘরে ফিরে যান তামিম।

ক্রিজে আসেন সৌম্য সরকার তবে তিনি বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি। ব্যক্তিগত ৫ রানে আউট হন তিনি। তখন দলীয় রান ছিলো ৬৬। এরপর দলের হাল ধরতে মাঠে নামেন মুশফিক। কিন্তু তিনিও বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি দলীয় ৯৭ ও ব্যক্তিগত ১২ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান তিনি।

এরপর ব্যক্তিগত ৬১ রানে আউট হন লিটন দাস।দলের যখন ১০২ রানে ৪ উইকেট তখন রিয়াদকে সঙ্গী হতে ক্রিজে আসেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তবে তার ইনিংসটি বেশি দূর এগোয়নি।

নবাগত আরিফুলের সংগ্রহ ১৬ বল থেকে ১৮ রান।

দলীয় ১৪৬ ও ব্যক্তিগত ২৪ রানে আউট হন তিনি। সাকিব আউটের পর আরিফুল হককে সাথে নিয়ে দলের রানের চাকা সচল রাখতে ব্যাট করে যান রিয়াদ।

১৮৫ রানের টার্গেট নিয়ে খেলতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ১৭.১ ওভারে ৭ উই্কেট হারিয়ে ১৩৫ রান।  এরপরই শুরু হয় বৃষ্টি। বৃষ্টির কারণে খেলা আর মাঠে গড়ায়নি।  বৃষ্টি আইনে বাংলাদেশ এ জয় পায়।

দলের হয়ে ওপেনার ক্যাক ওয়াল্টন ভালোভাবে শুরু করলেও ব্যাক্তিগত ১৯ রানে সাজঘরে ফেরেন সৌম্য সরকারের বলে।

এরপর পাওয়েল এবং ডিনেশ রামদিন করেন যথাক্রমে ২৩ ও ২‌১ রান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে ব্যাক্তিগত সর্বোচ্চ রান করেন আন্দ্রে রাসেল। তার সংগ্রহ ২১ বলে ৪৭ রান।