টি-টুয়েন্টি সিরিজ জয়ের পর ‘যুগপূর্তি’র দিনে টেস্টকে লক্ষ্য বানালেন সাকিব

ফুলকি ডেস্ক: টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতলেন সাকিব। এমন একটা দিনে এই সাফল্য এল, যেদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক যুগ পূর্ণ করলেন এই অলরাউন্ডার। এমন একটা সময়ে দাঁড়িয়ে বিদেশের মাটিতে টেস্ট জেতার লক্ষ্য ঠিক করলেন বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক

বিশ্বাস তাদের ছিলই। টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হেরে যাওয়ার পর ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে বাংলাদেশ দল ছিল আত্মবিশ্বাসী। মার্কিন মুলুকে ফ্লোরিডার মাঠে সেই আত্মবিশ্বাসেরই প্রতিফলন ঘটিয়ে সিরিজটা শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ জিতেছে ২-১ ব্যবধানে। সাকিবের মতে, গোটা দলের ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারটা রীতিমতো ‘অবিশ্বাস্য’।
দলের এ অবিশ্বাস্য পারফরম্যান্সে তাঁর নিজের পারফরম্যান্সও দুর্দান্ত। ব্যাট হাতে তিন ম্যাচে করেছেন ১০৩ রান, উইকেট নিয়েছেন ৪টি। হয়েছেন সিরিজসেরা। দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়া যাকে বলে, সেটাই করেছেন। অধিনায়ক হিসেবে আত্মবিশ্বাসটা দলের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার কাজ দারুণভাবে করা সাকিব বলছেন, ‘ছেলেরা দুর্দান্ত করেছে। প্রথম ম্যাচটা হারার পর আমরা মানসিক দৃঢ়তার পরিচয় দিয়েছি। প্রতিটি খেলোয়াড় বিশ্বাস করেছে আমরা ঘুরে দাঁড়াতে পারি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দল। আমি মনে করি, গোটা সিরিজে আমরা ভালো ব্যাটিং করেছি। আমরা ঠিকমতো শট খেলতে পেরেছি। এতে আমার বোলিংটা উপকৃত হয়েছে, আমি অধিনায়কত্বটাও অনেক ভালো করতে পেরেছি। এমনকি দলের যে খেলোয়াড়েরা মাঠে নামেনি, তারাও তাদের নিজেদের দায়িত্বগুলো পালন করেছে। আমার মনে হয়, এর চেয়ে ভালো কিছু আমি আশা করতে পারতাম না।’

টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের আনন্দের এ দিনেই নিজের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ‘যুগপূর্তি’ হলো সাকিবের। ২০০৬ সালে দীর্ঘ পথের সারথি হওয়ার শুরুটা করেছিলেন। আজ সেটি পরিপূর্ণতার দিকেই এগিয়ে চলেছে। তবে এমন একটা সময়ে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলনায়ক চান বাংলাদেশ যেন টেস্ট ক্রিকেটটা ভালোভাবে খেলতে পারে, ‘আমাদের এখন টেস্টটা যেন ভালো খেলতে পারি, সে চেষ্টা করতে হবে। টেস্টে আমরা ইতিমধ্যেই ঘরের মাঠে জিতছি। এবার পালা বিদেশের মাটিতে ভালো করা।’

এর আগে ওয়ানডে সিরিজ জেতা বাংলাদেশের ক্যারিবীয় সফর মোটামুটি সফলই বলা চলে। কেবল টেস্ট সিরিজটাই ভুলে যাওয়ার মতো। তবে সাকিব খুশি সীমিত ওভারের ক্রিকেটে, বিশেষ করে ওয়ানডেতে ২০১৫ বিশ্বকাপ-পরবর্তী ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পেরে, ‘আমরা ওয়ানডেতে গত তিন–চার বছর ধরেই ভালো করছি। ২০১৫ বিশ্বকাপের পর থেকেই এই ধারাবাহিকতা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয় আমাদের আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে। আমরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটটাও যে ভালো খেলতে পারি, সেই বিশ্বাসটাই খেলোয়াড়দের মধ্যে তৈরি হবে।’