ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে তামিমের হাফ সেঞ্চুরি

পুরো গ্যালারিই যেন বাংলাদেশি দর্শকদের দখলে। একখণ্ড বাংলাদেশ যেন উপস্থিত হয়েছে ফ্লোরিডার লডারহিলের সেন্ট্রাল ব্রোওয়ার্ড রিজিওনাল স্টেডিয়ামে। কিন্তু টস হেরে ব্যাট করতে নামার পর উপস্থিত দর্শকদের শুধুই হতাশা উপহার দিতে শুরু করে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। একের পর এক উইকেট হারানোর মিছিলে সামিল হতে থাকে ব্যাটসম্যানরা।

দলীয় ৭ রানে প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। আউট হন লিটন দাস। ২৪ রানের মাথায় রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে উইকেট দিয়ে আসেন মুশফিকুর রহীম। দলীয় ৪৮ রানের মাথায় আউট হয়ে যান সৌম্য সরকারও। নিজের স্বভাববিরুদ্ধ ব্যাটিং করে ১৮ বলে তিনি খেলেন মাত্র ১৪ রানের ইনিংস।

৪৮ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর যখন বাংলাদেশ ধুঁকতে শুরু করে দিল, তখনই ত্রাতা হিসেবে আবির্ভূত হন তামিম ইকবাল। সাকিব আল হাসানকে নিয়ে তিনি জুটি গড়েন। শুধু তাই নয়, বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রানও তুলতে থাকেন তিনি। যার ফলে দেখা গেলো মাত্র ৩৫ বলে পূরণ করে ফেললেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে ৬ষ্ঠ হাফ সেঞ্চুরি। ৫টি বাউন্ডারি এবং ১টি ছক্কার মার মারেন তিনি।

এ রিপোর্ট লেখার সময় তামিমের ব্যাট আর বেশি শানিত হয়ে উঠেছিল। ৪৩ বলে তিনি ৭৪ রান তুলে ফেলেন। আন্দ্রে রাসেলকে এক ওভারেই তিনটি বিশাল ছক্কা এবং একটি বাউন্ডারি মারেন তিনি। তবে চতুর্থ ছক্কা মারতে গিয়ে একেবারে বাউন্ডারি লাইনের ওপর ধরা পড়েন কিমো পলের হাতে।