আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর উদ্দেশ্য ছিল নওশাবার: র‌্যাব

নিরাপদ সড়কের দাবিতে চলমান আন্দোলনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর উদ্দেশ্যে অভিনেত্রী নওশাবা আহমেদ এমন গুজব ছড়িয়েছিলেন বলে জানান র‌্যাব লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ।

নওশাবাকে র‌্যাব-০১ এ নিয়ে প্রাথমিক জিঙ্গাসাবাদ শেষে শনিবার রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে শনিবার অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদকে উত্তরা থেকে আটক করাহয়।

র‌্যাবের কাছে স্বীকারোক্তিতে নওশাবা জানান, ফেসবুক লাইভে আসার সময় তিনি ঘটনাস্থলে ছিলেন না। জিগাতলা নিয়ে কথা বললেও সে সময় উওরা শুটিং স্পটে ছিলেন বলে স্বীকার করেন তিনি।

এদিকে শনিবার বিকেলে ফেসবুক লাইভে কাজী নওশাবা জানান, রাজধানীর জিগাতলায় একজন শিক্ষার্থীর চোখ তুলে ফেলা ও চার শিক্ষার্থীকে মেরে ফেলা হয়েছে। একটি ছেলের রিকোয়েস্টে এই লাইভ করেন বলেও স্বীকারোক্তি দেন নওশাবা।

স্বীকারোক্তিতে নওশাবা আহমেদ বলেন, রুদ্র নামের একটি ছেলের রিকোয়েস্টে সে ফেসবুক লাইভে এসে এসব কথা বলেছে। যেন সহিংসতা আরও বেড়ে যায়। অথচ রুদ্রর সাথে তার পরিচয় হয় ৩ তারিখে।

গুজব ছড়ানোর বিষয়ে অভিনেত্রেী নওশাবাকে কোন টাকা দেওয়া হয়েছে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে কমান্ডার মুফতি মাহমুদ বলেন, কারা কারা এর সাথে জড়িত এবং অর্থের লোভে এ রকম অপপ্রচার চালানো হয়েছে কিনা এসব বিষয়ে জিঙ্গাসাবাদ করা হবে ।

মুফতি মাহমুদ আরও বলেন, যে ঘটনা ঘটে নি অথচ সেটা ফেসবুক লাইভে এসে অপপ্রচার চালানো হয়েছে। এর সাথে রুদ্র ছাড়াও যারাই জড়িত আছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া যারাই এই ধরনের অপপ্রচার এবং বিভ্রান্তে লিপ্ত হবে তাদের প্রত্যেককে আইনের আওতায় আনা হবে। তাই শিক্ষাথীদের এই সব প্রপাগান্ডায় কান না দেওয়ারও আহবান জানান তিনি।