হজের প্রকার ও বিধি-বিধান

 হজ প্রধানত তিন ধরনের এক. তামাত্তু,  দুই. কিরান ও তিন. ইফরাদ। ১. তামাত্তু : হজের মাসে পৃথকভাবে প্রথমে ওমরা ও পরে হজ আদায় করাকে তামাত্তু হজ বলে। হজযাত্রীরা হজের মাসে প্রথমে শুধু ওমরার জন্য তালবিয়া পাঠের মাধ্যমে ইহরাম বাঁধবেন। তারপর তাওয়াফ ও সায়ি সম্পন্ন করে মাথা মুণ্ডন অথবা চুল ছোট করার মাধ্যমে ওমরা থেকে হালাল হয়ে যাবেন এবং স্বাভাবিক কাপড় পরে নেবেন। তারপর জিলহজ মাসের ৮ তারিখে মিনা যাওয়ার আগে নিজ অবস্থানস্থল থেকে হজের ইহরাম বাঁধবেন।

তামাত্তু হজ তিনভাবে আদায় করা যায় : ক. মিকাত থেকে ওমরার ইহরাম বেঁধে মক্কায় গিয়ে তাওয়াফ-সায়ি করে মাথা মুণ্ডন অথবা চুল ছোট করে হালাল হয়ে যাওয়া এবং হজ পর্যন্ত মক্কাতেই অবস্থান করা। ৮ জিলহজ হজের ইহরাম বেঁধে হজের কার্যক্রম সম্পন্ন করা। খ. মিকাত থেকে ওমরার নিয়তে ইহরাম বেঁধে মক্কা গমন করা। ওমরার কার্যক্রম তথা তাওয়াফ, সায়ি করার পর হলক-কসর সম্পাদন করে হালাল হয়ে যাওয়া। হজের আগেই জিয়ারতে মদিনা সেরে নেওয়া এবং মদিনা থেকে মক্কায় আসার পথে জুল-হুলাইফা বা আবইয়ারে আলি থেকে ওমরার নিয়তে ইহরাম বেঁধে মক্কায় আসা। অতঃপর ওমরা আদায় করে হলক-কসর করে হালাল হয়ে যাওয়া; তারপর ৮ জিলহজ হজের জন্য নতুনভাবে ইহরাম বেঁধে হজ আদায় করা। গ. ইহরাম না বেঁধে সরাসরি মদিনা গমন করা। জিয়ারতে মদিনা শেষ করে মক্কায় আসার পথে জুল-হুলাইফা বা আবইয়ারে আলি থেকে ওমরার নিয়তে ইহরাম বাঁধা অতঃপর মক্কায় এসে তাওয়াফ, সায়ি ও হলক-কসর করে হালাল হয়ে যাওয়া। এরপর ৮ জিলহজ হজের ইহরাম বাঁধা।