রোমাঞ্চকর শেষের অপেক্ষা এজবাস্টনে

রোমাঞ্চকর শেষের অপেক্ষায় এজবাস্টন  টেস্ট। সিরিজের প্রথম টেস্ট জিততে ভারতের চাই আর ৮৪ রান, ইংল্যান্ডের ৫ উইকেট। জয় আর ইংল্যান্ডের মাঝে দাঁড়িয়ে আছেন বিরাট কোহলি।

 

শুক্রবার তৃতীয় দিনে ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট হয়েছে ১৮০ রানে। প্রথম ইনিংসে ইংলিশদের ১৩ রানের লিড মিলিয়ে ভারতের লক্ষ্য ১৯৪। সফরকারীরা দিন শেষ করেছে ৫ উইকেটে ১১০ রানে।

 

সিরিজে এগিয়ে যেতে ইংল্যান্ডের মাটিতে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জিততে হবে ভারতকে। ১৯৭১ ওভালে সর্বোচ্চ ১৭৪ রান তাড়া করে জিতেছিল তারা। এজবাস্টনে প্রথম এশিয়ান দল হিসেবেও টেস্ট জয়ের হাতছানি তাদের সামনে।

 

ভারতের জয়ের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছেন কোহলি। সতীর্থদের ব্যর্থতার মাঝে দ্বিতীয় ইনিংসেও দলকে একাই টানছেন অধিনায়ক। প্রথম ইনিংসে ১৪৯ রানের পর এবার অপরাজিত ৪৩ রানে।

 

ইংল্যান্ড দিন শুরু করেছিল ১ উইকেটে ৯ রান নিয়ে। আগের দিন শেষ বিকেলে অ্যালিস্টার কুককে ফিরিয়েছিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ভারতীয় অফ স্পিনার এদিন ফেরান টপ অর্ডারের অন্য দুই ব্যাটসম্যান কিটন জেনিংস ও জো রুটকে।

 

৩৯ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর প্রতিরোধ গড়েছিলেন ডেভিড মালান ও জনি বেয়ারস্টো। মালানকে ফিরিয়ে ৩১ রানের জুটি ভাঙেন ইশান্ত শর্মা। দীর্ঘদেহী এই পেসার খানিক বাদে তিন বলের মধ্যে ফেরান বেয়ারস্টো ও বেন স্টোকসকে। লাঞ্চের পর একই ওভারে জস বাটলারকেও ফেরান ইশান্ত।

 

৩ উইকেটে ৭০ থেকে ইংল্যান্ডের স্কোর তখন ৭ উইকেটে ৮৭! একশর আগেই অলআউট হওয়ার শঙ্কা। সেখান থেকে দলকে টানেন স্যাম কুরান। ৬৩ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে স্বাগতিকদের লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন তিনি। শেষ তিন উইকেট জুটিতে আসে ৯৩ রান।

 

ইশান্ত ৫১ রানে নেন ৫ উইকেট। ইংল্যান্ডের মাটিতে তার দ্বিতীয় পাঁচ উইকেট-কীর্তি। অশ্বিন ৩ উইকেট, উমেশ যাদব নেন ২টি।

 

লক্ষ্য তাড়ায় দেখেশুনেই শুরু করেছিলেন দুই ভারতীয় ওপেনার মুরালি বিজয় ও শিখর ধাওয়ান। দুজন গড়ে ফেলেছিলেন ১৯ রানের উদ্বোধনী জুটি। এরপরই নিজের পরপর দুই ওভারে দুই ওপেনারকেই ফেরান স্টুয়ার্ট ব্রড। দলীয় ৪৬ রানে বেন স্টোকসের বলে ফেরেন লোকেশ রাহুলও।

 

এরপর অজিঙ্কা রাহানে ও প্রমোশন পেয়ে দিনেশ কার্তিক আর হার্দিক পান্ডিয়ার আগে নামা অশ্বিন ফিরলে ভারতের স্কোর হয়ে যায় ৫ উইকেটে ৭৮। দিনের তখনো প্রায় ঘন্টা খানেক খেলা বাকি। কার্তিককে (১৮*) সঙ্গে নিয়ে দিনটা পার করে দেন কোহলি  (৪৩*)। দুজন অবিচ্ছিন্ন আছেন ৩২ রানের জুটিতে।