পৃথিবীর সেরা ৫০ রেস্তোরাঁ

পর্যটকদের মন কেড়ে নিতে পৃথিবীর ছোটবড় সব রেস্তোরাঁই চেষ্টার কমতি রাখে না। কে কার চেয়ে ভোজনরসিকদের ভালো খাবার খাওয়াতে পারে, সেই সুস্থ প্রতিযোগিতা হয় প্রতি বছর।
এ বছরের ওয়ার্ল্ড’স ফিফটি বেস্ট রেস্টুরেন্ট অ্যাওয়ার্ডসে সেরা ৫০ রেস্তোরাঁর তালিকা প্রকাশিত হলো স্প্যানিশ বন্দরনগরী বিলবাওয়ের পালাসিও এয়ুসকালদোনা মিলনায়তনে। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সমবেত হন রান্নাবান্নায় পাঁচ মহাদেশের মাস্টারশেফরা।
ওয়ার্ল্ড’স ফিফটি বেস্ট রেস্টুরেন্ট অ্যাওয়ার্ডসের গ্রুপ এডিটর উইলিয়াম ড্রু জানান, ১ হাজার বিচারকের ভোটের সম্মিলনের মাধ্যমে বিজয়ী তালিকা চূড়ান্ত হয়েছে। রেস্তোরাঁ শিল্পের ‘অস্কার’তুল্য এ পুরস্কারে এবার দেখা গেছে ইউরোপের খাবার দোকানগুলোর জয়জয়কার।

বিশ্বের সেরা ৫০ রেস্তোরাঁ

১. ওস্তেরিয়া ফ্রান্সেসকানা (মোদেনা, ইতালি)
এল সেইয়ের দে কান রকা রেস্তোরাঁর মেন্যু২. এল সেইয়ের দে কান রকা (জিরোনা, স্পেন)

মিরাজুর রেস্তোরাঁয় বসে উপভোগ করা যায় নয়নাভিরাম ফরাসি উপকূল
৩. মিরাজুর (মঁতো, ফ্রান্স)
ইলেভেন ম্যাডিসন পার্কের মেন্যু৪. ইলেভেন ম্যাডিসন পার্ক (নিউ ইয়র্ক সিটি, যুক্তরাষ্ট্র)
গগন রেস্তোরাঁর মেন্যু৫. গগন (ব্যাংকক, থাইল্যান্ড)
সেন্ট্রাল রেস্তোরাঁর মেন্যু৬. সেন্ট্রাল (লিমা, পেরু)
মাইদো রেস্তোরাঁর পরিবেশ৭. মাইদো (লিমা, পেরু)

আরপেজ রেস্তোরাঁর প্রতিষ্ঠাতা শেফ অ্যালো পাসা
৮. আরপেজ (প্যারিস, ফ্রান্স)

মুগারিৎজ রেস্তোরাঁর মেন্যু
৯. মুগারিৎজ (সান সেবাস্তিয়ান, স্পেন)

আসাদর এতসেবারির বারবিকিউ
১০. আসাদর এতসেবারি (এক্সপে, স্পেন)
১১. কিনটোনিল (মেক্সিকো সিটি, মেক্সিকো)
১২. ব্লু হিল অ্যাট স্টোন বার্নস (পোকানটিকো হিলস, নিউ ইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র)
১৩.পুজল (মেক্সিকো সিটি, মেক্সিকো)
১৪. স্টাইরেরেক (ভিয়েনা, অস্ট্রিয়া)
১৫. হোয়াইট র্যা বিট (মস্কো, রাশিয়া)
১৬. পিয়াসা দোওমো (আলবা, ইতালি)
১৭. ডেন (টোকিও, জাপান)
১৮. দিসফ্রুতা (বার্সেলোনা, স্পেন)
১৯. কেয়ানিওম (কোপেনহেগেন, ডেনমার্ক)
২০. অ্যাটিকা (মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া)
২১. অ্যালো দুকাসো প্লাৎজা আতিনি (প্যারিস, ফ্রান্স)
২২. নারিসাওয়া (টোকিও, জাপান)
২৩. লে কালানদ্রে (রুবানো, ইতালি)
২৪. আলট্রাভায়োলেট (সাংহাই, চীন)
২৫. কজমা (নিউ ইয়র্ক সিটি, যুক্তরাষ্ট্র)
২৬. লে বার্নারডিন (নিউ ইয়র্ক সিটি, যুক্তরাষ্ট্র)
২৭. বোরাগো (সান্তিয়াগো, চিলি)
২৮. ওডেট (সিঙ্গাপুর)
২৯. অ্যালেনো পারিও প্যাবিও লুদোইয়া (প্যারিস, ফ্রান্স)
৩০. ডি.ও.এম. (সাও পাওলো, ব্রাজিল)
৩১. আরজাক (সান সেবাস্তিয়ান, স্পেন)
৩২. টিকেটস (বার্সেলোনা, স্পেন)
৩৩. দ্য ক্লোভ ক্লাব (লন্ডন, যুক্তরাজ্য)
৩৪. অ্যালিনা (শিকাগো, যুক্তরাষ্ট্র)
৩৫. মামো (ওসলো, নরওয়ে)
৩৬. আরিয়ালে (ক্যাস্তেল দি সাংগ্রো, ইতালি)
৩৭. রেস্টুরেন্ট টিম রাওয়ে (বার্লিন, জার্মানি)
৩৮. লাইল’স (লন্ডন, যুক্তরাজ্য)
৩৯. এস্ত্রিদি গাস্তন (লিমা, পেরু)
৪০. সেপটিম (প্যারিস, ফ্রান্স)
৪১. নিহনরিওরি রিগিন (টোকিও, জাপান)
৪২. লেডবুরি (লন্ডন, যুক্তরাজ্য)
৪৩. আজুরমেন্দি (লারাবেটু, স্পেন)
৪৪. মিকলা (ইস্তাম্বুল, তুরস্ক)
৪৫. ডিনার বাই হেস্টন ব্লুমেনথাল (লন্ডন, যুক্তরাজ্য)
৪৬. সেজন (সান ফ্রান্সিসকো, যুক্তরাষ্ট্র)
৪৭. শ্লোস শোয়েনস্টাইন (ফঁসতুনো, সুইজারল্যান্ড)
৪৮. ইজা ফ্রাঙ্কো (কোবারিদ, স্লোভেনিয়া)
৪৯. নাম (ব্যাংকক, থাইল্যান্ড)
৫০. টেস্ট কিচেন (কেপটাউন, দক্ষিণ আফ্রিকা)

সূত্র: সিএনএন