শাহরুখ খানের মেয়ের ছবি নিয়ে এত ক্ষোভ কেন?

বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের ১৮ বছর বয়সী মেয়ে সুহানা খানের ছবি প্রচ্ছদ করেছে ভোগ ইন্ডিয়া ম্যাগাজিন। জনপ্রিয় এ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে সুহানা খানের ছবি ছাপানোর ফলে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে পত্রিকাটি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠিত তারকারাও।

সমালোচনাকারীদের বক্তব্য, সুহানা খানের এ প্রচ্ছদে জায়গা পাওয়ার অধিকার নেই। কারণ, সে জন্য বিশেষ কোনো যোগ্যতার পরিচয় তিনি দিতে পারেননি বা বিশেষ কোনো অর্জনও নেই তার।

ভোগ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে জায়গা পাওয়াটাকে মনে করা হয় গৌরবের এবং সাধারণত শীর্ষ মডেল, অভিনেত্রী কিংবা গায়িকারা যখন তাদের ক্যারিয়ারের চূড়ায় থাকেন তখন তাদের ছবি প্রচ্ছদে ঠাঁই পায়। যেখানে সুহানা খান নিজেই নিজেকে বর্ণনা করেছেন, শিক্ষার্থী, নাট্টপ্রেমী এবং ভবিষ্যৎ তারকা হিসেবে।

‘বলিউডের কিং খান’ হিসেবে পরিচিত শাহরুখ খান তার বাবা। তাই অনেকে প্রভাবশালী বাবার প্রভাবের কারণে এমন সুযোগ পেয়েছেন বলে মন্তব্য করছেন। এছাড়া ফ্যাশন শুটের স্টাইল নির্দেশনা করেছেন, আনাইতা শ্রফ আদাজানিয়া যিনি ভোগ ম্যাগাজিনের ফ্যাশন ডিরেক্টর এবং শাহরুখ খানের দীর্ঘ দিনের বন্ধু।

সামাজিক মাধ্যম টুইটারে যারা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন ক্যারিয়ার প্রতিষ্ঠায় স্ট্রাগল করছেন এমন অভিনেত্রীরা। তারা এক্ষেত্রে তাদের নিজেদের অভিজ্ঞতার বিষয়ও তুলে ধরেছেন।

suhana-2

তবে নেতিবাচক বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া সুহানা এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, ‘আমি নিজেকে সবসময় বলি যে নিন্দুকেরা বিদ্বেষ ছড়িয়ে যাবে, কিন্তু এটা যে আমাকে আপসেট করে না সত্যিকারভাবে সেটা আমি বলতে পারি না। এটা বিরক্তিকর, কিন্তু আমি নিজেকে বোঝাই অন্য অনেকের আরও বড় বড় সমস্যা আছে।’

সুহানা তার লেখাপড়া চালিয়ে যেতে চান। নিজেকে একজন অভিনেত্রী হিসেবে তৈরি করার চেষ্টা শুরুর আগে ইউনিভার্সিটি যাওয়াই তার মূল কাজ। সাক্ষাতকারে সে আরও জানান, ‘তারা মা-বাবা তাকে পত্রিকার প্রচ্ছদের মডেল হওয়ার আগে অনেক লম্বা সময় নিয়ে এবং শক্তভাবে ভাবতে বাধ্য করেছেন। আমি সরাসরি হ্যাঁ বলে দিতে চাইছিলাম, কিন্তু তারা চাইছিলেন আমি আরও ভেবে-চিন্তে সিদ্ধান্ত নিই।

এদিকে সুহানা খানকে যেভাবে সামাজিক মাধ্যমে আক্রমণের মুখে পড়তে হচ্ছে তার বিপক্ষেও অবস্থান নিয়ে তাকে সমর্থনে এগিয়ে এসেছেন অনেকে। ফটো-শুটে ছিলেন ফটোগ্রাফার এরিকোস অ্যান্ড্রু, তিনি মনে করেন, সুহানা অনেকদূর পথ পাড়ি দেবে।

তিনি বলেন, সুহানা ক্যামেরার সামনে যেভাবে স্বাভাবিক ও স্বাচ্ছন্দ্য ছিল সেটা সবাইকে অবাক করে দিয়েছে। এমন প্রতিভা খুব কমই পেয়েছি।