আশুলিয়া শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সড়ক-মহাসড়কে সীমিত পরিবহণ

আশুলিয়া ব্যুরো: রাজধানীর উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার আশুলিয়ার সকল সড়ক ও মহাসড়কে সীমিত পরিবহণ চলাচল করতে দেখা গেছে। এ যেন অঘোষিত হরতাল পালিত হয়েছে। সাধারণ মানুষ ও কর্মজীবী সকল শ্রেণি পেশার মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বুধবার সকাল ১০টা থেকে এ অবস্থা চলতে দেখা গেছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, আশুলিয়ার ঢাকা-আরিচা ও নবীনগর-কালিয়াকৈর মহাসড়কের পাশাপাশি আব্দুল্লাহপুর-বাইপাইল ও মিরপুর-নরসিংহপুর-কাশিমপুর-কোনাবাড়ি সড়কসহ সকল শাখা সড়কে ব্যাপক পরিবহণ সংকট ছিলো। পুরোদিন ছিল সড়ক মহাসড়ক ফাঁকা।

এ যেন অঘোষিত হরতাল। বেলা বাড়ার সাথে সাথে পরিবহণ সংখ্যা ক্রমেই কমতে থাকে। সাধারণ মানুষের চলাচলও ছিল সীমিত। সর্বত্র আতঙ্ক বিরাজ করতে দেখা যায়। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে অধিকাংশ সাধারণ মানুষ, শিক্ষার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের যাবতীয় কর্মকান্ড দেখে সময় অতিবাহিত করতে দেখা গেছে।

বিশেষ করে যখনই কোন স্থানে শিক্ষার্থীদের দুর্ঘটনার কোন সংবাদ পেয়েছেন তখনই তাদের মাঝে শোকের ছায়া নামতে দেখা গেছে। রাজধানীসহ ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে কেন্দ্র করে পরিবহণ চালকরা বিভিন্ন স্থানে গাড়ি পার্কিং করে পুরোদিন অলস সময় কাটিয়েছেন। ফলে সড়কগুলো যানবাহণ শূণ্য হয়ে পড়েছে। বিকেলে পোশাক কারখানাগুলো ছুটি হলে যানবাহণের অভাবে পায়ে হেঁটে তাদের গন্তব্যে যেতে হয়েছে। এ অবস্থা সকল শ্রেণি পেশারক কর্মজীবীদের মাঝে দেখা গেছে। তবে আশুলিয়ার কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের এ ধরণের কর্মসূচী পালন করতে দেখা যায়নি।