এবার সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত মীম ও আব্দুল করিমের সহপাঠীদের পিটালো পুলিশ

ফুলকি ডেস্ক: ২৪ ঘণ্টা আগে রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের কুর্মিটোলায় ঘটে যাওয়া সড়ক দুর্ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছে শিক্ষার্থীরা। নিহত শিক্ষার্থীরা শহীদ রমিজউদ্দীন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের শিক্ষার্থী। তার বন্ধুরা গতকাল থেকেই রাস্তা অবরোধ করেছে; বাস ভাঙচুর করেছে- যে বাস প্রাণ কেড়ে নিয়েছে দিয়া এবং করিমের। আজ সকাল থেকেই ছাত্র-ছাত্রীরা রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তা অবরোধ করে রাখে। এক পর্যায়ে তাদের ওপর হামলা চালায় পুলিশ!

সোশ্যাল সাইটে ছড়িয়ে পড়া বেশ কিছু ভিডিওতে দেখা গেছে, কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের নির্বিচারে লাঠিচার্জ করছে পুলিশ। লাঠিপেটার শিকার হওয়া শিক্ষার্থীদের পরনে ছিল নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের নির্ধারিত পোশাক। একপর্যায়ে কিছু শিক্ষার্থী বিক্ষুব্ধ হয়ে কয়েকটি গাড়িতে হামলা চালানোর চেষ্টা করে। বারবার তাদের তীব্র লাঠিচার্জ করে রাস্তা থেকে সরানোর চেষ্টা করে পুলিশ; পরেক্ষণেই আবার রাস্তা অবরোধ করে বসে শিক্ষার্থীরা।

সোশ্যাল সাইটে সচেতন নাগরিকরা বলছেন, যে কোনো যৌক্তিক দাবিতে রাস্তায় নামলেই পুলিশি হামলার ঘটনা ঘটে। এই কলেজ পড়ুয়া ছেলেমেয়েগুলো তাদের বন্ধু হত্যার বিচারের দাবিতে পথে নেমেছে। তারা ফিরে যেতে চায় নিজেদের ক্লাসরুমে। এই ছোট ছোট শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে ক্লাসরুমে না ফিরিয়ে পুলিশি দিয়ে পেটানো ভালো চোখে দেখছেন না কেউ। গাড়ি বন্ধ থাকায় সাধারণ মানুষের ভোগান্তি হয়েছে বেশ, তবে সবাই বলছেন, ‘আজ হেঁটে এতটুকু কষ্ট হয়নি।’