রাশেদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১১ সেপ্টেম্বর

কোটা সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খানের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ আগামী ১১ সেপ্টেম্বর ধার্য করেছেন আদালত।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে মানহানিকর বক্তব্য প্রকাশের অভিযোগের মামলাটিতে রোববার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেননি। এজন্য ঢাকা মহানগর হাকিম গোলাম নবী প্রতিবেদন দাখিলের নতুন এ তারিখ ঠিক করে দেন।

গত ১ জুলাই রাজধানীর শাহবাগ থানায় মামলাটি দায়ের করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক আল নাহিয়ান খান জয়। এরপর মামলার এজাহার আদালতে পৌঁছালে আদালত মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

এদিকে মামলার বাদী আল নাহিয়ান খান জয় অভিযোগ করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে সব চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বাতিল করার ঘোষণা দেওয়ার পরে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন প্রকাশে কাজ করে যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। যা আমরা বিভিন্ন পত্রিকা, টেলিভিশনের মাধ্যমে জানতে পেরেছি। কিন্তু এখনো কেন প্রজ্ঞাপন দেওয়া হচ্ছে না, এ বিষয়টিকে পুঁজি করে কোটা সংস্কার আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করে সারা দেশে অরাজকতা সৃষ্টির জন্য রাশেদ খান গত ২৭ জুন তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে মানহানিমূলক ও নাশকতার উদ্দেশ্যে বক্তব্য প্রদান করেছেন।

তার (রাশেদ খান) এ বক্তব্যের কারণে প্রধানমন্ত্রীর মানহানি হয়েছে এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারা দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অরাজকতার সৃষ্টি হতে পারে বলে তারা মনে করেন।