চন্দ্রগ্রহণের সময় যৌনমিলনে বিপদ!

শুক্রবার রাতের আকাশে দেখা যাবে ‘ব্লাড মুন’। একুশ শতকের দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ হতে চলেছে এ দিন। পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ চলবে প্রায় ১ ঘণ্টা ৪২ মিনিট ৫৭ সেকেন্ড। যদিও আগে ও পরের খণ্ডগ্রাস গ্রহণ মিলিয়ে পৃথিবীর ছায়ায় চাঁদ থাকবে ৩ ঘণ্টা ৫৪ মিনিট।

চাঁদ বরাবরই একটি রোম্যান্টিক বিষয়। এই মহাজাগতিক ঘটনার সময়, কারও মনে যৌনমিলনের আকাঙ্ক্ষা জন্মাতেই পারে। কিন্তু গ্রহণের সময় কী করা উচিত, কী করা উচিত নয়— এ নিয়ে সংস্কার ও কুসংস্কারের শেষ নেই। তার মধ্যে অন্যতম নিদান হল— গ্রহণের সময়ে যৌন মিলন এড়িয়ে যাওয়া উচিত।

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী জ্যোতিষি সোনিয়া ভাগিয়া জানিয়েছেন, কেন গ্রহণের সময় যৌন মিলন উচিত নয়।

পুরাণ অনুযায়ী, যখন মোহিনী-রূপী বিষ্ণু দেবতাদের মধ্যে অমৃত বিতরণ করছিলেন, তখন রাহুও সেই অমৃতের ভাগ পেয়ে যান কৌশলে। সূর্য ও চন্দ্র দেবতা রাহুর কৌশল ধরে ফেলেন। সঙ্গে সঙ্গে তার মাথা কেটে দেয়া হয়। কিন্তু ততক্ষণে অমৃত খেয়ে অমরত্ব লাভ করেছেন রাহু।

মাথা কেটে দেয়ার পরে মাথার উপরের অংশটি রাহু ও দেহের বাকি অংশটি কেতু হিসেবে থেকে যায়। তার পর থেকেই নাকি রাহু চাঁদ আর সূর্যকে খুব বিরক্ত করে এই দুই সত্তা।

এখনও কেউ কেউ বিশ্বাস করেন, গ্রহণের সময়ে রাহু পৃথিবী ও চাঁদের মাঝখানে এসে বসে। হিন্দু শাস্ত্রে তাই গ্রহণ একটি অপবিত্র ঘটনা।

জ্যোতিষ মতে গ্রহণের সময়ে যে যে কাজ নিষেধ করা হয়, তার মধ্যে শারীরিক মিলন অন্যতম। এমনই মনে করা হয় যে, এই সময় যৌ মিলনের ফলে যদি সন্তান জন্মায়, তা হলে সে ‘রাহুর সন্তান’ হয়।

তবে এই মিথে বিশ্বাস করেন না অনেকেই। তা ছাড়া, বিজ্ঞানও এই নিয়ে কোনো নিষেধাজ্ঞা জারি করে না। সূত্র : এবেলা।