শুক্রবার আকাশে উঠবে ‘রক্ত চাঁদ’! কী কী বিপর্যয় ঘটতে পারে সেদিন?

ফুলকি ডেস্ক: হিব্রু বাইবেলের ‘বুক অফ জোয়েল’-এর বর্ণনা থেকে ব্লাড মুন বা রক্তবর্ণ চাঁদ নিয়ে বিস্তর ভবিষ্যদ্বাণী প্রচলিত। তার মধ্যে বেশির ভাগটাই প্রলয় সংক্রান্ত। তবে এর বাইরেও কিছু অন্য বিপর্যয়ের কথা বলে লোকবিশ্বাস। এখানে রইল তার কয়েকটির কথা। সব ছবিই শাটারস্টক থেকে।

  • ব্লাড মুন-এর দিনটিই নাকি ধ্বংসের দিন। এদিন শুরু হবে মহাপ্রলয়।
  • রক্ত চাঁদের দিন ভ্যাম্পায়াররা প্রবল সক্রিয় হয়ে উঠবে। এদিন তারা নতুন জীবনীশক্তি লাভ করবে।
  • ওয়্যারউলফ বা নেকড়ে মানুষরা যদি কারোকো ব্লাডমুনের দিন কামড়ায়, তা হলে সে-ও নেকড়ে মানুষে পরিণত হবে।
  • এদিন রাতে কবর থেকে উঠে আসবে পচা গলা শব। তারা দখল নেবে জনপদগুলির।
  • রক্ত চাঁদের দিকে তাকালেই ময়েরা গর্ভবতী হয়ে পড়বে। তাদের গর্ভে বাসা বাঁধবে স্বয়ং শয়তান।
  • কেউ যদি নয় বার রক্ত চাঁদের দিকে তাকান, তা হলে তাঁর জন্য স্বর্গের দরজা বন্ধ হয়ে যাবে চিরতরে।

তবে বিশেষজ্ঞরা জানান, এ সমস্ত কিছুই অন্ধবিশ্বাস। ব্লাড মুনের সঙ্গে ধ্বংস বা বিপর্যয়ের কোনও সম্বন্ধই নেই। এটি একটি অতি স্বাভাবিক প্রাকৃতিক ঘটনা। পরের দিন আবার স্বাভাবিক চাঁদ আকাশ আলো করবে।