মরক্কোয় সুপার কাপের ফাইনালে লড়বে বার্সা-সেভিয়া

ফুলকি ডেস্ক: স্প্যানিশ সুপার কাপে মুখোমুখি হয় স্পেনের ঘরোয়া ফুটবল লিগ লা লিগা ও কোপা দেল রে চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু এবারের মৌসুমের দুটিতেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বার্সেলোনা। যার কারণে দুই শিরোপা জেতা বার্সেলোনার মুখোমুখি হবে কোপা দেল রে’র রানার্সআপ দল সেভিয়া। গত এপ্রিলে কোপার ফাইনালে সেভিয়াকে ৫-০ গোলে হারিয়ে ট্রফির স্বাদ পায় কোচ আরনেস্তো ভালভার্দের শিষ্যরা।

আর প্রথমবারের মতো সুপার কাপ ফাইনাল হবে স্পেনের বাইরে। রয়্যাল স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন (আরএফইএফ) জানিয়েছে, মরক্কোর তানজিয়েরে হবে এবারের ফাইনাল ।

আগে স্প্যানিশ সুপার কাপের শিরোপা নির্ধারণ হতো দুই লেগ মিলিয়ে। দুই দলই নিজেদের মাঠে ম্যাচ খেলার সুযোগ পেত। কিন্তু নতুন নিয়ম অনুযায়ী দুই লেগের বদলে এক লেগ খেলা হবে। যদিও নিয়ম পরিবর্তনে খুশি নয় সেভিয়া।

১৯৮২ সালে শুরু হওয়া স্পেনের এই সুপার কাপ সবসময় ঘরের মাটিতেই অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু এবারই প্রথমবারের মতো এটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে স্পেনের বাইরে। আগামী ১২ আগস্ট হবে এক ম্যাচের এই সুপার কাপ।

স্পেনের ফুটবল ফেডারেশন জানিয়েছে, প্রতিবেশী দেশটির তানজিয়ারের ৪৫ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতার ইবনে বতুতা স্টেডিয়ামে হবে ম্যাচটি।

অবশ্য ভেন্যু হিসেবে মরক্কোর বিষয়টি চূড়ান্ত করতে ফিফার অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে আরএফইএফ।

বার্সার জন্য অবশ্য আফ্রিকা সফর সুখকর হতেই পারে। যেখানে গত মে মাসে দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে নেলসন মেন্ডেলা সেঞ্চুরি কাপে জয়ের স্মৃতি রয়েছে কাতালানদের। সেখানে স্থানীয় দল মেমেলোদিত সানডাউনের বিপক্ষে জয়ের হাসি নিয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন ব্লাউগ্রানারা।

স্প্যানিশ সুপার কাপে সর্বোচ্চ ১২ বারের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা। গত মৌসুম সহ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১০ বার শিরোপা জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ২০০৭ সালে রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়ে একবারই শিরোপা জিতে সেভিয়া। এছাড়া ২০১০ ও ২০১৬ সালে দুইবার রানার্সআপ হয় তারা।