ধামরাইয়ে ক্লাস ফাঁকি দিয়ে উপজেলা পরিষদের সামনে আড্ডা, দুই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মারামারি

ধামরাই প্রতিনিধি: ধামরাইয়ে ক্লাস ফাঁকি দিয়ে উপজেলা পরিষদের পুকুর পাড়ে আড্ডা দিতে আসা দুই কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। গত সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সোমবার সকাল এগারটায় উপজেলা পরিষদের পুকুর পাড়ে আড্ডা দিতে আসে কলেজের ড্রেস পরিহিত ভালুম আতাউর রহমান খান ডিগ্রী কলেজ, আফাজ উদ্দিন স্কুল ও কলেজ এবং ধামরাই সরকারি কলেজের ছাত্রছাত্রীরা। এসময় আফাজ উদ্দিন স্কুল ও কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র সিফাত ও ধামরাই সরকারি কলেজের ছাত্র মোস্তাকের সঙ্গে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মোস্তাক ও তার সঙ্গীরা বেল্ট দিয়ে পিটিয়ে সিফাতকে আহত করে। বাঁচাও বাঁচাও বলে সিফাতের ডাক চিৎকারে উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, সানোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খালেদ মাসুদ খান লাল্টুসহ স্থানীয়রা এগিয়ে গেলে মোস্তাক গংরা পালিয়ে যায়। আহত সিফাতকে একটি ফার্মেসীতে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, প্রতিদিন সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত উপজেলা পরিষদের পুকুর পাড়ে আড্ডায় মেতে উঠে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ইউনিফর্ম পরিহিত শিক্ষার্থীরা। আড্ডা একসময় আপত্তিজনক ও অশালীন পর্যায়ে পৌছায়। যা পুকুরে গোসল ও পুকুর পাড় দিয়ে হাটাহাটি করতে আসা  ব্যক্তিদের বিব্রতকর অবস্থায় ফেলে দেয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, উপজেলা প্রশাসনের নাকের ডগায় দীর্ঘ সময় ধরে আড্ডা দিতে থাকা ছাত্র-ছাত্রী ও বখাটেদের কখনো নিষেধ করতে দেখা যায়নি।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম বলেন, ‘এখন থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’