আমজাদ মোল্লার বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ দাখিল ৩ অক্টোবর

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে যশোরের বাঘারপাড়ার আমজাদ হোসেন মোল্লার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) দাখিল করার জন্য আগামী ৩ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

 

মামলায় ফরমাল চার্জ দাখিল করার জন্য সময়ের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিত ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যর আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এই আদেশ দেন।

 

আমজাদ হোসেনকে ২০১৭ সালের ২৫ এপ্রিল গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের পাঁচটি অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযোগে বলা হয়, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে বাঘারপাড়া উপজেলার প্রেমচারা গ্রামের আমজাদ মোল্লা নিজ বাড়িতে রাজাকার ক্যাম্প স্থাপন করেছিলেন। ওই ক্যাম্পের সদস্যরা বহু মানুষকে নির্যাতন, হত্যাসহ নানাবিধ অত্যাচার করতেন। ১৯৭১ সালের ১৫ আগস্ট আমজাদ হোসেনের নেতৃত্বে ১০-১২ জন একত্রিত হয়ে পাশ্ববর্তী মাগুরার শালিখা উপজেলার সীমাখালী গ্রামের রজব আলীকে বাড়ি থেকে ধরে বাঘারপাড়ার চাঁদপুর গ্রামে নিয়ে আসে এবং ওই গ্রামের একটি আমবাগানে গামছা দিয়ে চোখ ও দড়ি দিয়ে হাত বেঁধে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে হত্যা করে। এছাড়া আমজাদ মোল্লার বিরুদ্ধে ১৯৭১ সালের ১৮ আগস্ট বাঘারপাড়ার উত্তর চাঁদপুর গ্রামের মৃত শফিউদ্দিন বিশ্বাসের দুই ছেলে ময়েন উদ্দিন এবং আয়েন উদ্দিনকে হত্যার অভিযোগ রয়েছে।

 

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে যখন যে দল ক্ষমতায় এসেছে, আমজাদ সেই দলের নেতা হয়েছেন। সর্বশেষ জাতীয় পার্টি ছেড়ে ২০০০ সালে ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি হয়েছিলেন। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতার ছত্রচ্ছায়ায় ছিলেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।