জেনে নিন কিভাবে ঘরোয়া উপায়ে সহজেই চুল পড়া রোধ করবেন?

ফুলকি ডেস্ক: চুল পড়া রোধ করতে মানুষ কত কিই না করে! চুল পড়ে যাওয়া কিংবা মাথায় টাক পড়া অনেকেরই দুশ্চিন্তার কারণ। গবেষকেরা প্রথমবারের মতো তাদের গবেষণায় এমন কিছু জানতে পেরেছেন, যা চুল পড়া ও টাকপড়া রোধে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে।

আমাদের বয়স যতই বাড়তে থাকে, চুল ততই পাতলা হতে থাকে, চুলের রঙ বদলে যেতে থাকে এবং সময়ের সাথে চুল পড়াও বাড়তে থাকে। তাই বলে সারাজীবন মাথার চুল ধরে রাখার স্বপ্ন আমরা ত্যাগ করতে পারি না।

চুল পড়া রোধ করতে জবা ফুল খুবই উপকারী। জবা ফুলের তেল চুল শক্ত ও মজবুদ করে তুলতে সাহায্য করে।

জবা ফুলের তেল প্রস্তুতকরণ:

উপকরণ: জবা ফুল, নারকেল তেল

প্রাণালী: যে কোন রঙের ৪ – ৫টি জবা ফুল নিবেন বা তার বেশিও নিতে পারেন। জবা ফুল শুকনো হলে সমস্যা নেই। জবা ফুলে পানি দেয়া যাবে না। কারন ভিজা ফুল তেলের মধ্যে দিলে তেল ছিঁড়তে পারে। জবা ফুল গুলো আগের দিন রাতে গাছ থেকে ছিড়ে রাখবেন। এবার এ জবা ফুল গুলো ভাজার জন্য ১০০ গ্রাম তেল নিবেন। একটি লোহার কড়াইতে তেল নিয়ে গরম করে নিতে হবে। চাইলে নারকেল তেল ১০০ গ্রামের কম বেশিও নিতে পারেন। যদি নারকেল তেল বেশি নেন তবে জবা ফুল ও বেশি নিতে হবে। চুলার আচঁ অল্প থাকবে। তেল একটু গরম হলে জবা ফুল গুলো দিয়ে দিবেন। এ ভাবে জবা ফুলটা ৫ – ১০ মিনিট রেখে দিবেন , তবে এর বেশি সময় রাখতে হবে না। ১০ মিনিট পর খুব সাবধানে ফুল গুলো নেড়ে দিবেন। আরও ভালো হবে যদি আপনি এর মধ্যে মেথি দিয়ে দেন। এতে মাথাও ঠান্ডা রাখবে , আর চুলের গোড়াও মজবুদ হবে। ৮ – ১০ মিনিট পর দেখবেন , জবা ফুল গুলো ভাজা হয়ে গেছে। ফুল গুলো তেলে দেওয়ার পরে আচঁ এক দম কমিয়ে দিবেন। ভাজা হয়ে গেলে তেলের সাথে কড়াইতে রেখে দিবেন ৪ – ৫ ঘন্টা। এবার একটি সাকঁনি নিয়ে পরিষ্কার বাটিতে তেলটা সেকেঁ নিবেন। ফুল গুলো চেপে চেপে যতটা সম্ভব তেল বের করে নিবেন। জবা ফুল চুলের গোড়ার রক্ত সঞ্চলন বৃদ্ধি করে। ফলে চুলের গোড়া শক্ত হয়। এটি চুল পড়াও বন্ধ করে। তেল ছাকা হয়ে গেলে দেখবেন , তেলের মধ্যে জবা ফুলের গুড়ো পড়ে আছে । এটা কোন খারাপ কিছু নয়। এ ভাবে আপনি জবা ফুলের তেল বানিয়ে ব্যবহার করতে পারবেন। এ তেলটি সপ্তাহে ২ -৩ বার ব্যবহার করবেন। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে তেল চুলে ভাল ভাবে ম্যাসাজ করতে হবে। চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ম্যাসাজ করবেন। তারপর চুলে একটি নরম কাপড় পেচিয়ে ঘুমিয়ে পড়বেন। সকাল বেলা উঠে পারলে একটু হট অয়েল ট্রিটমেন্ট করবেন। একটি পাত্রে পানি গরম করে তার মধ্যে তাওয়ালে ভিজাবেন। এবার তাওয়ালে মাথায় ২ -৩ মিনিট পেচিয়ে রাখবেন । এ ভাবে ২ বার করে আপনি চুল শ্যাম্পূ করে ফেলবেন । এতে আপনার চুল পড়া কমে চুল শক্ত ও মজবুদ হবে।

জবা ফুলের উপকারিতা:

  • জবা ফুলে আছে প্রচুর ‘ভিটামিন – এ’ এবং ‘ভিটামিন – সি’। যা স্কাল্পের চুলকানি কমাতে সাহায্য করে। কয়েকটি জবা ফুল নিয়ে পানিতে সেদ্ধ করবেন। তারপর সেই পানি ঠান্ডা করে চুলে লাগাবেন। এতে স্কাল্পের চুলকানি সহ নানা সমস্যা কমে যাবে।
  • অনেকের চুল বয়সের আগেই সাদা হয়ে যায়। এ ক্ষেত্রে জবা ফুল খুবই উপকারি। কয়েকটি জবা ফুল মিক্সারে গুঁড়ো করে নিবেন। এর সঙ্গে টকদই এবং জবা ফুলের তেল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করবেন। এ পেস্ট চুলে ভালো ভাবে ম্যাসাজ করবেন। কিছু সময় চুলে রেখে হালকা গরম পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলবেন। এতে চুলের বুড়িয়ে যাওয়া রোধ হবে।
  • জবা ফুল মিক্সারে গুঁড়ো করে নিবেন। এর সঙ্গে নারকেল তেল মিশিয়ে চুলে ব্যবহার করবেন। এতে চুল অনেক শক্ত ও মজবুদ হবে।
  • জবা ফুল মাথার খুশকি কমাতেও অনেক সাহায্য করে। কিছু মেথি দানা নিয়ে পানিতে সারা রাত ভিজিয়ে রাখবেন। পরদিন মেথিদানা ও জবা ফুল এক সাথে মিক্সারে গুঁড়ো করে নিবেন। এর সঙ্গে অলিভ ওয়েল মিশিয়ে একটি পেস্ট বানাবেন। এ পেস্ট মাথার স্কাল্পে লাগিয়ে ম্যাসাজ করবেন। এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলবেন। এতে মাথার খুশকি দূর হবে। চুল অনেক বেশি উজ্জ্বল ও সুন্দর হবে।