গাজীপুরে ব্যাংক কর্মকর্তাকে পুলিশের মারধর

গাজীপুর প্রতিনিধি : সোনালী ব্যাংকের এক কর্মকর্তাকে মারধরের অভিযোগে এক সার্জেন্ট ও এক পুলিশ কনস্টেবলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। আজ রোববার সকালে গাজীপুরের টঙ্গীর সাতাইশ এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে। এতে মো. আমির হোসেন (৪৫) নামের ভুক্তভোগী ওই ব্যক্তির হাতের নখ ফেটে রক্ত বের হয় এবং জামাকাপড় ছিঁড়ে যায়।

আহত এই ব্যক্তি টঙ্গীর সাতাইশ ব্যাংকপাড়া এলাকার বাসিন্দা। আমির হোসেন সোনালী ব্যাংকের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় শাখার কর্মকর্তা।

ভুক্তভোগী ওই ব্যক্তি বলেন, সকাল নয়টায় বাসা থেকে রিকশা করে সে ব্যাংকে যাওয়র জন্য রওনা দেন। সাতাইশ রোডের মাথায় পৌঁছালে কর্তব্যরত সার্জেন্ট মো. ফিরোজ ও কনস্টেবল শ্যামল দত্ত রিকশা থামান। রিকশা সামনে যেতে দেওয়া হবে না জানালে তাদের সঙ্গে চালকের তর্কাতর্কি শুরু হয়। এসময় ব্যাংক কর্মকর্তা ভাড়া দিয়ে চলে যাওয়ার কথা বললে পুলিশ সদস্যরা তাকে গালিগালাজ করতে থাকেন। একপর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে তাকে মারধরও করেন। এটি দেখে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে ঘটনার প্রতিবাদ জানান এবং পুলিশ সদস্যকে অবরুদ্ধ করেন।

পরে টঙ্গী থানার পুলিশ ও ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা অবরুদ্ধ দুই পুলিশকে উদ্ধার করেন। একই সঙ্গে আহত ব্যাংক কর্মকর্তাকে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। গাজীপুর ট্রাফিক বিভাগের সহকারী পুলিশ সুপার মো. সালেহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, এ ঘটনায় সার্জেন্ট ফিরোজ ও কনস্টেবল শ্যামলকে তাৎক্ষণিকভাবে প্রত্যাহার করে গাজীপুর পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।