গাজীপুরে নিহত ছেলের বিরুদ্ধে বাবার হত্যা মামলা

গাজীপুর প্রতিনিধি : গাজীপুর মহানগরের হায়দরাবাদ এলাকায় নিজের স্ত্রী ও কন্যাকে হত্যা করে কামাল হোসেনের আত্মহত্যার ঘটনায় কামাল হোসেনের পিতা মো. হাসেম মিয়া নিহত ছেলেকে আসামি করে জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। জয়দেবপুর থানায় শুক্রবার রাতে এ মামলাটি দায়ের করেন তিনি।

মামলার বাদি বৃদ্ধ হাসেম মিয়া এজাহারে উল্লেখ করেন, তার ছেলে নিহত কামাল হোসেনের কোনো পেশা ছিলনা। ইতিপূর্বে সে চাকরি করেছে। আর মাঝে মধ্যে জমি বেচা-কেনা করতো। কামাল হোসেনের একমাত্র মেয়ে সানজিদা কামাল রিমি ২০১৭ সালে এইসএসসি পাস করে। পরে সে ডাক্তারি পড়ার জন্য মেডিকেল কলেজে ভর্তির চেষ্টা করে আসছিল। কামাল হোসেন আর্থিক সমস্যার কারণে মানষিক বিষন্নতায় ভুগছিল।

মামলায় তিনি আরো উল্লেখ করেন, ছেলে কামাল হোসেন অজ্ঞাত কারণে গত ১৮ জুলাই রাত ১০টার পর থেকে পরদিন সকাল সাড়ে ১০টার পূর্বে যে কোনো সময় তার বাসার ভেতরে স্ত্রী নাজমা আক্তার ও মেয়ে সানজিদা কামাল রিমিকে নেশা জাতীয় দ্রব্য সেবন করিয়ে অথবা অন্য কোনো উপায়ে সুইচ গিয়ার চাকু দ্বারা আঘাত করে তাদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখমসহ গলাকেটে হত্যা করে। পরে সে নিজেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। শনিবার বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় নৃশংসভাবে মা ও মেয়ে খুন হওয়া বাড়িটি দেখার জন্য বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন ভিড় জমাচ্ছেন। এলাকাবাসী নৃশংস এ হত্যাকা- মেনে নিতে পারছেন না।

উল্লেখ্য,গত বৃহস্পতিবার দুপুরে হত্যাকা-ের জানাজানি হলে পুলিশ বিকেলে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। ময়নাতদন্ত শেষে শনিবার নিহতদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

জয়দেবপুর থানার ওসি মো. আমিনুল ইসলাম জানান, স্ত্রী ও মেয়েকে হত্যা করে পিতার আত্মহত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে ঘটনার প্রকৃত কারণ জানা যাবে। ঘটনাটি পুলিশ তদন্ত করছে।