কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা তারেকের সন্ধান চায় পরিবার

স্টাফ রিপোর্টার : কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক তারেক রহমানের সন্ধান চায় তার পরিবার। সোমবার দুপুরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টারস অ্যাসোসিয়েশনে (ক্র্যাব) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান তারেকের বাবা মো. আব্দুল লতিফ এবং মা শাহানা বেগম।

সংবাদ সম্মেলনে আব্দুল লতিফ বলেন, গত ১৪ জুলাই তারেকের সঙ্গে শেষ কথা হয় আমার মেয়ের। সে ফোনে বলছিল- তাকে সাদা পোশাকে কেউ অনুসরণ করছে ও খুঁজছে। এই কথার পর থেকে আমরা তার মোবাইল বন্ধ পাই।

রোববার দিবাগত মধ্যরাতে শাহবাগ থানায় তারেকের মা জিডি করতে গেলে ডিউটি অফিসার জানান তারা তদন্ত করে জিডি নেবে। আব্দুল লতিফ আরও জানান, তারেক কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লেখাপড়া শেষ করেছে। ছাত্রজীবনে সে কুমিল্লা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিল। বিসিএস এর কোচিং করতে সে ঢাকায় আসে। ভর্তি হয় কনফিডেন্স কোচিং সেন্টারে।

বাড্ডায় বোনের বাসায় থেকে চাকরির জন্য পড়াশুনা করছিল তারেক। তিনি বলেন, ‘আমি তাকে (তারেক) বলতাম চাকরি এমনিতেই হবে আন্দোলন করা লাগবে না। সে আমাকে বুঝানোর চেষ্টা করতো।

আমি বলতাম তোমার লেখাপড়া শেষ এখন ক্যাম্পাসের দিকে যাওয়ার দরকার নেই। কথা শুনতো না। আমি আমরা ছেলের সন্ধান চাই।’ তারেকের বাবা আরও বলেন, ‘যদি ডিবি পুলিশ তারেককে আটক করে থাকে তবে তা স্পষ্ট করা হোক। সে যদি অপরাধ করে থাকে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে কিন্তু আমরা তার খোঁজ চাই।’