কালিয়াকৈরে ইন্টারনেট ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে আহত

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি: গাজীপুরের কালিয়াকৈরে হানিফ খান (২৬) নামের এক ইন্টারনেট ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা। এসময় সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে  অফিসের বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুরসহ নগদ টাকা লুটপাট করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় আজ রবিবার (১৫-৭-২০১৮) দুপুরে আহত ব্যবসায়ীর বাবা জাবেদ খান বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

থানায় দায়ের করা মামলা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কালিয়াকৈরের চান্দরা পলানপাড়া এলাকায় হানিফ খান ও তার আত্মীয় বিল্লাল মিলে ইন্টারনেট ব্যবসা করে আসছে। চান্দরা পলানপাড়া এলাকায় তাদের একটি ইন্টারনেট অফিস রয়েছে। গত শনিবার রাত সাড়ে ৯টারদিকে হানিফ খান তার অফিসে কাজ করতেছিল। এসময় মাহবুব, আজিবর, ফরহাদসহ ১৩/১৪জন রাম দা, হকিষ্ট্রিক, লোহার রডসহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হানিফ খানের ইন্টারনেট অফিসে হামলা চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা হানিফের অফিসের বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুর করে প্রায় ৪ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন করে এবং নগদ ২ লাখ টাকা লুটে নেয়। এতে বাধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা হানিফ খানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এসময় ওই ব্যবসায়ীর ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা খুন করার হুমকি দিয়ে বীর দর্পে চলে যায়। এঘটনায়  রবিবার দুপুরে ব্যবসায়ী হানিফ খানের বাবা জাবেদ খান বাদী হয়ে মাহবুব, আজিবর, ফরহাদ, নজরুল, নবাব, আশরাফুল, ফিরোজ, রশিদ, মুন্না, শফিউল, সেলিমকে আসামী করে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার এজারহার ভুক্ত ১ নং আসামী মাহবুবকে গ্রেপ্তার করে।

কালিয়াকৈরে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, এঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।