পাকিস্তানে ফিরে বিমানবন্দরেই নওয়াজ শরিফ মেয়েসহ গ্রেফতার

ফুলকি ডেস্ক : দুর্নীতি মামলায় ক্ষমতাচ্যুত দশ বছরের সাজায় দ-িত পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ লন্ডন থেকে দেশে ফিরে বিমানবন্দরেই গ্রেপ্তার হয়েছেন। পাকিস্তানের ইংরেজি সংবাদ মাধ্যম ডনের খবরে বলা হয়, শুক্রবার স্থানীয় সময় রাত ৮টা ৫০ মিনিটে লাহোর বিমানবন্দরে নামার পর পাকিস্তান মুসলিম লিগের (নওয়াজ) এই নেতা ও তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজকে গ্রেপ্তার করা হয়। পাকিস্তানের ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরোর কর্মকর্তারা তাদের পাসপোর্টও জব্দ করেছেন বলে ডনের খবরে জানানো হয়।
লন্ডনে চারটি বিলাসবহুল বাড়ির মালিকানা নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করে গত সপ্তাহে পাকিস্তানের একটি আদালত নওয়াজকে ১০ বছর ও তার মেয়ে মরিয়মকে সাত বছরের কারাদ- দেয়। গত ৬ জুলাইয় ওই রায়ে কারাদ-ের পাশাপাশি নওয়াজকে ১ কোটি ৫০ লাখ পাউন্ড এবং মরিয়মকে ২০ লাখ পাউন্ড জরিমানাও করা হয়। সেই সঙ্গে নওয়াজ পরিবারের লন্ডনের সব সম্পত্তি জব্দের নির্দেশ দেয় আদালত।
অসুস্থ স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য গত কয়েক মাস ধরে লন্ডনে অবস্থান করছিলেন নওয়াজ ও তার মেয়ে মরিয়ম। তাদের অনুপস্থিতিতেই আদালত ওই রায় ঘোষণা করে। কোনো ধরনের দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে আসা নওয়াজের পরিবার বলে আসছে, ২৫ জুলাই অনুষ্ঠেয় জাতীয় নির্বাচনে তাদের ঠেকাতেই সেনাবাহিনীর ইন্ধনে এই ‘ষড়যন্ত্র’ করা হয়েছে।
বিমনবন্দরে পৌঁছানো মাত্র গ্রেপ্তার হতে পারেন জেনেও শুক্রবার লন্ডন থেকে দেশের পথে রওনা হন নওয়াজ ও মরিয়ম। দুবাইয়ে যাত্রাবিরতির সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, যে কোনো পরিস্থিতির জন্যই তিনি প্রস্তুত আছেন। ফলে সব আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের নজর ছিল পাকিস্তানের দিকে। আদালত তিনবারের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজকে আজীবনের জন্য রাজনীতিতে অযোগ্য ঘোষণা করায় তিনি নির্বাচনের অংশ নিতে পারবেন না।
কিন্তু বর্তমানে ক্ষমতায় থাকা তার দল পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল) এর সমর্থকদের উজ্জীবিত করতেই তিনি ঝুঁকি নিয়ে দেশে ফিরেছেন বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের ধারণা। গত বুধবার লন্ডনে এক জনসভায় নওয়াজ বলেন, “এক সময় আমরা প্রায়ই বলতাম রাষ্ট্রের ভেতর রাষ্ট্র, এখন এটা রাষ্ট্রের উপর রাষ্ট্র। যদিও আমি চোখের সামনে কারাগার দেখতে পাচ্ছি, তারপরও আমি পাকিস্তান যাচ্ছি।”