খালেদা জিয়া ও যুবদল কেন্দ্রীয় সভাপতির মুক্তির দাবিতে সভা

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি যুবদল ঢাকা জেলার উদ্যেগে শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও যুবদল সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর মুক্তির দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ঢাকা জেলা যুবদল সভাপতি রেজাউল করিম পলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক মন্ত্রী মির্জা আব্বাস। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আব্দুল্লাহ মান্নান, আমান উল্লাহ আমান, ব্যারিস্টার জিয়াউর রহমান খান, শহিদ উদ্দিন চৌধুরি এনি, মোর্তাজুল করিম বাদরু, নুরুল ইসলাম নয়ন, আবু আশফাক, রাশেদুল আহসান রাসেদ, ঢাকা জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা জেলা যুবদলের সাবেক আহ্বায়ক নাজিম উদ্দিন (ভিপি নাজিম)সহ আরো অনেকে।

অনুষ্ঠানে মির্জা আব্বাস বলেন, ক্ষমতায় টিকে থাকতে প্রতিবেশি দেশের তোশামোদ করছে সরকার; আগামী ৩ সিটি নির্বাচনের নিরপেক্ষতার উপর নির্ভর করছে জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে কী না।খালেদা জিয়া ও যুবদল কেন্দ্রীয় সভাপতি

অন্যদিকে আমান উল্লাহ আমান বলেন, জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে বিএনপিকে বিপাকে ফেলতে দলের ভেতর বাইরে ষড়যন্ত্র চলছে। তা এড়িয়ে চলতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান এই বিএনপি নেতা।

এসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ভিপি নাজিম বলেন,পকেটের নেতাদের কমিটির গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিলে রাজপথে আন্দোলনের জন্য কর্মী পাওয়া বড় কঠিন হয়ে পরে তাই তিনি কেন্দ্রীয় নীতি নীর্ধারকদের কমিটি ডিকলারের ব্যাপারে আরো বেশি সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দেন।

এসময় সাংবাদিকদের নাজিম কেন্দ্রীয় নেতাদের বরাত দিয়ে আরো বলেন উপযুক্ত সময়েই আসবে বিএনপির কর্মসূচী। সরকার পতন আন্দোলনের জন্য দেশের মানুষ প্রস্তুত বলে মনে করেন বিএনপির এই নেতা ।

জনাব নাজিম,বেগম খালেদ জিয়াকে ছাড়া তার দল নির্বাচনে যাবেনা বলেও সাংবাদিকদের স্পষ্ট জানিয়ে দেন। তিনি আরো বলেন মানুষ এই সরকারের আচরণে অতিষ্ঠ, জনগণ অচিরেই এই সরকারের অগণতান্ত্রিক আচরণ থেকে মুক্তি চায়।

আয়োজিত অনুষ্ঠানটিতে ভিপি নাজিম তার বক্তব্যে নেতা কর্মীদের ধৈর্য্য ধরে পরিস্থিতির মোকাবেলা করার আহ্বান জানান।

প্রেসক্লাবের একটি পৃথক অনুষ্ঠানে ব্যারিষ্টার মওদুদ বলেন আদালত থেকে ৪ মাসের জামিন পেলেও বিচার বিভাগের উপর সরকারি হস্তক্ষেপের কারনে কারামুক্ত হতে পারেননি খালেদা জিয়া। সরকার পতনে জাতীয় ঐক্যের বিকল্প নেই বলেও মনে করেন তিনি। কোটা আন্দোলন নিয়ে শিক্ষার্থীদের সাথে সরকার প্রতারনা করেছে বলেও মনে করেন মওদুদ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাভার থানা যুবদলের সভাপতি গোলাম হোসেন হোসেন ডালিম, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শহিদ, প্রচার সম্পাদক মোঃ মাসুদ রানা, শাহীন, আয়নাল হোসেন, আনোয়ার হোসেনসহ ঢাকা জেলা সকল ইউনিটের নেতৃবৃন্দসহ আরো অনেকে।