বিএনপির অংশগ্রহণের সম্ভাবনা ভেবেই প্রার্থী দিবে আ’লীগ

স্টাফ রিপোর্টার : আর মাত্র কয়েক মাস পরই অনুষ্ঠিত হবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সেই উপলক্ষে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নিজ এলাকায় শুরু করেছেন বিভিন্ন কার্যক্রম। মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নিজ এলাকায় এখন থেকে মাসে ২ থেকে ৩বার অবস্থান করে এবং এলাকার মানুষের সঙ্গে আড্ডা দিতে শুরু করেছেন।

সভা, সমাবেশ কিংবা বিভিন্ন সামজিক অনুষ্ঠানেও যোগ দিচ্ছে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। তবে এখনো কারা পাচ্ছেন মনোনয়ন তা নিশ্চিত করেননি ক্ষমতাসীন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণের সম্ভাবনা রয়েছে ভেবেই ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ তার দলীয় মনোনয়ন দেবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতাকর্মীরা। তবে এখন পর্যন্ত কোনো প্রার্থীর মনোনয়নই চূড়ান্ত হয়নি।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, আগামী অক্টোবরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন। এরই মধ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদাও ডিসেম্বরের শেষে অথবা জানুয়ারিতে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা বলেছেন। তার কথা অনুসরন করে মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঠে ফিরছেন। সঙ্গ দিচ্ছেন ভোটের সাথে।

আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর কয়েকজন সদস্য বলেছেন, প্রথম সারির নেতাদের নাম এমনিতেই চূড়ান্ত থাকে। কিন্তু এবার কিছুটা ব্যতিক্রম হতে পারে। এবার র্শীষ নেতাদের বাইরে কে কে নির্বাচনে নৌকার টিকেট পাবেন, তা বলার সময় এখনও হয়নি। এখনও কিছু চূড়ান্ত হয়নি। আগামী নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক ও কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে। বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা বা না করার ভিত্তিতে প্রার্থী মনোনয়নে সংযোজন-বিয়োজন হবে। এবারের নির্বাচনে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের অংশগ্রহণের সম্ভাবনা রয়েছে ভেবেই এগুচ্ছে আওয়ামী লীগ।

সংবাদমাধ্যমে মনোনয়নের যেসব তালিকা আসছে, সেগুলো ভুয়া বলে জানিয়েছেন দলের সিনিয়র নেতারা। মনগড়া, ভুয়া তালিকার সঙ্গে বাস্তবতার কোনো সম্পর্ক নেই। মনোনয়নের খসড়া তালিকা চূড়ান্ত করা নিয়ে যেসব খবর প্রকাশিত হয়েছে, তার কোনোটিরই কোনো ভিত্তি নেই বলেও জানান সরকার দলীয় এই নেতা। মিডিয়া প্রকাশিত এমন কোনো প্রার্থী তালিকা এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি। আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ড ও সভাপতিম-লীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ।