চলতি মাসেই ১৬ হাজার টাকা মজুরি ঘোষণার দাবি গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের

চলতি জুলাই মাসের মধ্যেই গার্মেন্টস শ্রমিকদের মজুরি ১৬ হাজার টাকা ঘোষণা করার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সংযুক্ত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন। সোমবার ( ৯ জুলাই) মজুরি বোর্ডের কার্যক্রমে শ্রমিকরা হতাশ, জুলাই মাসের মধ্যে ১৬ হাজার টাকা মজুরি ঘোষণার দাবিতে নির্মল সেন মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে এ কথা বলেন বাংলাদেশ সংযুক্ত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ বজলুর রহমান বাবলু।

এসময় তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, বর্তমানে গার্মেন্টস শ্রমিকরা যে বেতন পায় তা খুবই সামান্য, তা দিয়ে একটি পরিবার পুরোপুরি ভরণপোষণ হয় না। তাই চলতি মাসের মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিকদের নূন্যতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা করার দাবি জানাচ্ছি।

বজলুর রহমান বাবলু আরো বলেন, ‘বেশ কয়েক মাস ধরে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছি কিন্তু কোনো সাড়া পাচ্ছি না। জুলাই মাসের মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিকদের মজুরি ১৬ হাজার টাকা না করলে আমরা কঠোর আন্দোলন যাবো।

কাজেই মজুরি বোর্ডের এই অনিশ্চয়তায় গার্মেন্ট শ্রমিকরা বসে থাকবে না। ইতোমধ্যেই সরকার রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প কারখানার শ্রমিকদের জন্য ন্যূনতম মজুরি ৮ হাজার ৩০০টাকা এবং সর্বোচ্চ মজুরি ১১হাজার ২০০ টাকা ঘোষণা করেছে অথচ দেশের ৮০শতাংশ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের স্বাভাবিক জীবনযাপনের জন্য সময় মতো সিদ্ধান্ত নিতে চলছে গড়িমসি।’ ‘এধরনের গড়িমসি তালবাহানা মেনে নেবে না, তারা তাদের ন্যায্য অধিকার ন্যূনতম মজুরি ১৬হাজার টাকা আদায়ের নিমিত্তে যেকোনো শান্তিপূর্ণ কঠোর কর্মসূচি যাবে।’

‘৪৫লক্ষ গার্মেন্টস শ্রমিক শান্তিপ্রিয় দেশের সংবিধান ও আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল আর সে কারণে তাদের নীরবতাকে দুর্বলতা ভেবে তাদের সামনে রীতিমত মুলা ঝুলিয়ে রাখা যাবে না। আন্দোলনের মাধ্যমে ৪৫ লক্ষ শ্রমিক শিল্প গার্মেন্টস শ্রমিক তাদের দাবি আদায় করবে।

তাই আমরা বলতে চাই গার্মেন্টস শ্রমিকরা চূড়ান্ত আন্দোলনে যাওয়ার আগেই অর্থাৎ চলতি মাসেই গার্মেন্টস শ্রমিকদের জন্য ন্যূনতম১৬ হাজার টাকা মজুরি ঘোষণা করতে হবে।’‘শ্রমিকরা অতিশয় সহনশীল এবং কারখানার প্রতি অত্যন্ত যতœশীল বিধায় তারা জ্বালাও-পোড়াওয়ের মতো ঘৃণিত কর্মসূচিতে বিশ্বাস করে না শ্রমিক এবং তাদের ন্যায্য মজুরি চাই ন্যায্য অধিকার চাই পরিশেষে বলতে চাই মজুরি বোর্ডের স্থবিরতায় পোশাক শিল্প শ্রমিকদের জন্য যে হতাশা ক্ষোভ বিরাজ করছে সেটা অবিলম্বে দূর করতে হবে।

দূর করে জুলাই মাসের মধ্যে পোশাকশিল্প শ্রমিকদের মজুরি ঘোষণার মধ্য দিয়ে শ্রমিকদের দাবি বাস্তবায়িত করতে হবে।’ এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, মোসাদ্দেক হোসেন স্বপন সভাপতি বিএসএসবএফ, সাধারণ সম্পাদকবিএসএসবএফ মোকাদ্দেম, শেফালী হোসেন, গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা দেলোয়ার হোসেন ,মাহতাব উদ্দিন শহীদ, আলমগীর রনি ও বিএসজিএসএফ কেন্দ্রীয় নেতা মাহবুবুর রহমান, মোজাম্মেল হক ,আবু সুফিয়ান ,মিজানুর মিজানুর রহমান রাজ, সুজায়েত উল্যা সুজা, নাসরিন আক্তারখুকি, নিলা, গাজীপুর আঞ্চলিক নেতা আলো বেগম, মারুফ মিয়া, সিদ্দিকুর রহমান প্রমুখ।