সাভারে বিয়ের প্রলোভনে লীভটুগেদারে গর্ভবতী, ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : সাভারে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক নারীর সঙ্গে চার মাস লীভটুগেদার করেছে এক এনজিও কর্মকর্তা। এ ঘটনায় ধর্ষণের অভিযোগ এনে ওই ভুক্তভুগী নারী সাভার মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। পরে পুলিশ ওই অভিযুক্ত এডওয়ার্ড কর্মকারকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করছে। সাভার উপজেলার বিরুলিয়া ইউনিয়নের আকরাইন গ্রামের আইটরপাড়ায় এঘটনা ঘটেছে।

এলাকাবাসী ও এডওয়ার্ড কর্মকারের বাড়ি ভাড়াটিয়া জন কিশোর হাওলাদারের সূত্রে জানা গেছে, আশা এনজিও কর্মকর্তা জন এডওয়ার্ড কর্মকারের স্ত্রী ডায়েবেটিক রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রায় ৮ মাস আগে মৃত্যবরণ করেছেন।

এ অবস্থায় গত ৪ মাস আগে জনএডওয়ার্ড কর্মকারের বোনের ছেলে মিরপুর এলাকার বাসিন্দা জুয়েল মধুকে বিয়ে করানোর সিদ্ধান্ত হয়। পরে খুলনা এলকার বাসিন্দা জন এডওয়ার্ডের বন্ধু বেনজামিন ব্যানার্জী শ্যালিকা আইরিন (৩২)কে দেখতে আনা হয়। পাত্রী আইরিনকে উঠানো হয় জন এডওয়ার্ডের বাড়িতে।

কিন্তু ভাগ্নে জুয়েল মধু পাত্রী আইরিনকে দেখে পছন্দ করেনি। পরে জন এডওয়ার্ড কর্মকার তার বন্ধু বেনজামিনকে জানায় তার শ্যালিকাকে সে নিজেই বিয়ে করবে। এ প্রস্তাব মেনে নিয়ে আইরিন জন এডওয়ার্ড কর্মকারের বাসায় থাকতে শুরু করলে তাদের মধ্যে দৌহিক মিলন শুরু হয়।

এক পর্যায়ে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ায় জন এডওয়ার্ডকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। কিন্তু এডওয়ার্ড কর্মকার আইরিনকে বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দেয়। শুধু তাই নয়, জন এডওয়ার্ডের বাসা থেকে আইরিনকে বের করে দেওয়ারও চেষ্টা করে।

পরে শনিবার সকালে আইরিনকে বাসা থেকে বের করে দেওয়া জন্য ১০/১২ জন সন্ত্রাসী ভাড়া করে আনে জন এডওয়ার্ড কর্মকার। এ সময় আইরিন বিষয়টি এলাকাবাসীকে জানালে তারা পুলিশের আশ্রয় নিতে পরামর্শ দেয়।

আইরিন তাদের পরামর্শমতে, সাভার মডেল থানায় গিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ জন এডওয়ার্ড কর্মকারকে শনিবার বিকালে বাসা থেকে ধরে নিয়ে ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত দেখিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করে।
সাভার মডেল থানার বিরুলিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্য (এসআই) তারিকুল ইসলাম বলেন, ভুক্তভোগী নারীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক জন এডওয়ার্ডকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া মেয়েটিকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানে হয়েছে বলেও জানান তিনি।