টানা ২৩ মাস অপরাজেয় বেলজিয়াম

ফুলকি ডেস্ক: রাশিয়া বিশ্বকাপে এই মুহূর্তে এক নম্বর ফেভারিট ভাবা হচ্ছে ব্রাজিলকে। এরপরই ফেভারিট বলা হচ্ছে ফ্রান্স, ইংল্যান্ড আর বেলজিয়ামকে। তার বড় কারণ ব্রাজিলের ক্রমান্নয়ে ভালো খেলা এবং জার্মানি, স্পেন, আর্জেন্টিনার মতো দলগুলো ইতোমধ্যেই বিদায় নেওয়া। বেলজিয়াম কোচ বলছেন ‘ফেভারিট’ ব্রাজিলকে রুখে দেওয়ার ক্ষমতা তাদের আছে। ব্রাজিল-বেলজিয়ামের ম্যাচটা বিশ্বকাপের সেরা ম্যাচ হবে বলে মনে করছেন রবার্তো মার্টিনেজ।

২০১৬ সালের আগস্টে দায়িত্ব নেওয়া রবের্তো মার্তিনেসের অধীনে বেলজিয়ামের অপরাজেয় পথচলাটাও আরও দীর্ঘ হলো। এই নিয়ে শেষ ২৩ ম্যাচের একটিতেও হারেনি তারা। মার্তিনেস যোগ দেওয়ার পরের মাসে স্পেনের কাছে ২-০ গোলে হেরেছিল দলটি। তার অধীনে বেলজিয়ামের ওটাই ছিল প্রথম ম্যাচ এবং এখন পর্যন্ত ওই একটিই হার। অর্থাৎ টানা ২৩ মাসে কোনো হার নেই দলটির।

১৯৭০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পশ্চিম জার্মানির জয়ের পর প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপের নকআউটে জাপানের বিপক্ষে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়েও জয় নিয়ে মাঠ  বেলজিয়াম।

বেলজিয়াম কোচ বলেন, আপনি যখন ব্রাজিলের মতো একটা দলের বিপক্ষে খেলতে নামবেন তখন আপনাকে অবশ্যই ১১ জন খেলোয়াড় দিয়েই আক্রমণ ও রক্ষণ সামলাতে হবে। আমরা নির্দিষ্ট করে বলছি না, তবে বল পায়ে থাকলে আমাদের কি করতে হবে সেটা আমরা বুঝতে পারছি।

তিনি বলেন, আমরা প্রস্তুত, আমরা দুই বছরের বেশি সময় ধরে কঠোর পরিশ্রম করেছি। আমরা (বিশ্বকাপে) সব ম্যাচ জিতেছি এবং ১২টি গোল করেছি। আমরা ভালো খেললে (ব্রাজিলের বিপক্ষে) অনেক সুযোগ তৈরি করতে পারব। এখানে ভুলের কোনো সুযোগ নেই। ভুল করলেই ব্রাজিল সেটা কাজে লাগাবে। আমি মনে করি টুর্নামেন্টের সেরা ম্যাচ হবে এটা।

বেলজিয়াম কোচ বললেন, আমাদের রক্ষণ সামলাতে হবে এবং যখনই বল পাওয়া যাবে তখনই তাদের ব্যাথার কারণ হতে হবে। আমাদের কৌশল এমনই হতে পারে। আর এই কৌশলের জন্য আমরা প্রস্তুত।