তিন সিটিতে একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবে ২০ দল

রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবে বলে জানিয়েছে ২০ দলীয় জোট। বুধবার বিকেলে দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলীয় জোটের বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ৩ সিটিতে ২০ দল একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবে। এখনাে আলাদা কোনো প্রার্থী থাকবে না। বৈঠকে অবিলম্বে খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির এছাড়াও তার জামিন নিয়ে সরকার যে ছলচাতুরি করছে তার প্রতিবাদ জানিয়েছে । তাছাড়া সারাদেশে গ্রেফতারকৃত ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের মুক্তি, কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর ছাত্রলীগের হামলার নিন্দা, সারাদেশে মাধদ নিয়ন্ত্রণের নামে বিচারবহিভূর্ত হত্যা, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে মিয়ানমারকে চাপ বৃদ্ধির বিষয়ে আলোচনা হয়।

সিলেটে জামায়াতের প্রার্থীকেই সমথন দেয়া হবে কিনা জানতে চাইলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, এখনও প্রার্থীতা প্রত্যাহারের সময় আছে। প্রার্থী তো প্রত্যাহারেরে সময় শেষ হয়ে যায়নি। পরবর্তীতে সে বিষয়ে জোটোর মতামত তুলে ধরা হবে।

জামাতের সাথে আমাদের কোনো টানা পোড়ান নেই। তারা একক প্রার্থীর বিষয়ে এক মত পোষণ করেছে। একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবে বলেও জানিয়েছে। বর্তমান রাজনৈতিক সংকটে জাতীসংঘের মহাসচিব নির্বাচন সম্পর্কে কিছু জানতে চেয়েছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি তারা আমাদের কাছে নির্বাচনের পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে চেয়েছে। আমরা আমাদের পক্ষ থেকে বর্তমান রাজনৈতিক পেক্ষাপট তুলে ধরেছি।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে ২০ দলীয় জোটের সভায় উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য মাওলানা আবদুল হালিম, জাতীয় পার্টি (জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, বিজেপি চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিভ রহমান পার্থ, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, লেবার পার্টি (একাংশ) চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, মহাসচিব এম.এম. আমিনুর রহমান, বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি, মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, এনডিপি চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তজা, এনপিপি চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, এলডিপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম, জাগপা সভাপতি অধ্যাপিকা রেহানা প্রধান, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, খেলাফত মজলিশ মহাসচিব ড. আহমেদ আবদুল কাদের, ডিএল সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, (অপরাংশ) মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদী, বিএমএল সভাপতি এএইচএম কামরুজ্জামান খান, মহাসচিব শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, পিপলস লীগ মহাসচিব সৈয়দ মাহবুব হোসেন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতী রেজাউল করিম, ইসলামিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আবুল কাশেম।