চীনে আবাসিক নির্মাণ খাতে কু ঋণ ২০ ভাগ বৃদ্ধি

ফুলকি ডেস্ক : চীনের আবাসিক নির্মাণ খাতে ঋণ পরিশোধে মন্দা দেখা দেওয়ায় এ খাতে কু ঋণের পরিমান দাঁড়িয়েছে ২০ ভাগ। ঋণ নিয়ে তা শোধ না করায় এর পরিমাণ দাঁড়িয়েছে দেড় শতাংশে। চায়না ওরিয়েন্ট এ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির বার্ষিক পরিসংখ্যান বলছে, যদিও এধরনের কু ঋণের পরিমান কম তবে তা অর্থনীতির গড় ১.৭৫ ভাগের দিকে এগুচ্ছে। ফলে এধরনের কু ঋণ চীনের ব্যাংকিং খাতে নেতিবাচক প্রভাব ছাড়াও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে পিছুটান সৃষ্টি করতে পারে। এ খাতে সংশ্লিষ্টরা তাই আবাসিক খাতে ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে কঠোরতা অবলম্বন করছেন যাতে তা বাজার বিকৃতি ঘটাতে না পারে। ব্লুমবার্গ

চায়না ওরিয়েন্টের জরিপে দেখা গেছে, বাণিজ্যিক ব্যাংকের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এমন ৩৯১জন বলছেন, আবাসিক সম্পত্তির মূল্য ২০ ভাগ কমে যাওয়ায় ব্যাংকগুলো তীব্র চাপের মুখে পড়েছে। এক তৃতীয়াংশ বলছেন, আবাসিক সম্পদের মূল্য আরো ৩০ শতাংশ সংশোধন হতে পারে। আবার নতুন করে আবাসিক খাতে ঋণ দেওয়ার পরও এবছরের বকেয়া ঋণের ৫৬ ভাগ দাঁড়িয়েছে এ খাতের ঋণ। গত বছর প্রথম তিনমাসে এ খাতের ঋণ পরিশোধের হার একই ছিল। আবাসিক সম্পদের ওপর ধার্যকৃত কর পরিশোধে সাড়া না পাওয়া গেলে এ খাতে আরো বড় ধরনের নেতিবাচক প্রভাব পড়বে এবং ব্যাংকগুলোর ক্ষেত্রে এধরনের ঝুঁকি আরো বহন করা সম্ভব হবে না।

ব্লুমবার্গ ইকোনোমিক্স’এর মতে চীনের আবাসিক খাত দেশটির জিডিপির কুড়ি শতাংশ। চীনের নীতিনির্ধারকরা যখন আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্যে চেষ্টা করছে তখন আবাসিক খাত এমন এক ঝুঁকি সৃষ্টি করেছে যা কু ঋণের পরিমানকে আরো বৃদ্ধি করতে পারে।