কেমন হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টাইগারদের স্কোয়াড?

ফুলকি ডেস্ক: রাশিয়ায় চলছে বিশ্বকাপের উন্মাদনা। সেই ডামাডোলের মধ্যে বুধবার রাতে আমেরিকায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে মাঠে নামছে টাইগাররা। নর্থ সাউন্ডে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় শুরু হবে টেস্টটি। এই টেস্ট সিরিজে দীর্ঘ ৭ বছর পর বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেবেন বিশ্বের অন্যতম সেরা অল রাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

ক্রিকেট বিশ্বের এক সময়কার পরাশক্তি ওয়েস্ট ইন্ডিজ বর্তমানে টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের ৯ নম্বরে আছে। এক ঘর এগিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান অষ্টম স্থানে। তবে দুই দলের দ্বৈরথে এগিয়ে ক্যারিবিয়রাই। একবারই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিতেছিল টাইগাররা। সেটা ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে। ২০০৯ সালে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার নেতৃত্বে ২ টেস্ট সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইট ওয়াশ করেছিল বাংলাদেশ। এছাড়া বাকি ৫ সিরিজেই হেরেছে বাংলাদেশ।

সেবার বাংলাদেশ দলের সহ-অধিনায়ক ছিলেন সাকিব। সেই অভিজ্ঞতা এবার অনুপ্রেরণা হিসাবে কাজ করতে পারে। কারণ ওটাই ছিল দেশের বাইরে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট সিরিজ জয়। তবে সাকিবের জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে ক্যারিবিয়দের পেস আক্রমণ। জেসন হোল্ডার, কেমার রোচ আর মিগুয়েল কামিন্সের পাশাপাশি দলে আছেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। ২০১২ সালে অভিষিক্ত শ্যানন গত ১৮ মাস ধরে আছেন দারুণ ফর্মে। ২০১৭ সাল থেকে ২০১৮ সালের জুন পর্যন্ত ১২ টেস্টে ২৩.৬৬ গড়ে নিয়েছেন ৫৪ উইকেট। এর মধ্যে ইনিংসে ৫ উইকেট পেয়েছেন ৩ বার। আর এক ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়েছেন ১ বার। ভয়ঙ্কর এই ফর্ম নিয়েই বাংলাদেশের বিপক্ষে মাঠে নামছেন ৩০ বছর বয়সী এই পেসার।

তবে নতুন কোচ স্টিভ রোডসের প্রস্তুতিটা ভালোই নিয়েছে টাইগাররা। চন্ডিকা হাথুরুসিংহে চলে যাওয়ার পর এই প্রথম হেড কোচ নিয়ে কোন সিরিজ শুরু করছে বাংলাদেশ। ক্যারিবিয় পেসারদের সামলাতে পিচ্ছিল গ্রানাইড স্লাবে ব্যাটিং অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ।

নতুন কোচের অধীনে নতুন শুরুই চায় বাংলাদেশ। সাদা পোশাকে সাকিব আল হাসানেরও এটা নতুন অধ্যায়ই। পুনরায় টেস্ট অধিনায়ক নির্বাচিত হওয়ার ৬ মাস পর মাঠে নামছেন তিনি। ফেব্রুয়ারিতে ইনজুরির কারণে ঘরের মাঠে খেলতে পারেননি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

ক্যারিবিয়রা সাধারণত বোলিং-বান্ধব উইকেটেই খেলে। এবারও তার ব্যতিক্রম হবে না। চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা না করলেও তামিম ইকবালের সাথে ওপেন করতে পারেন লিটন দাস। এছাড়া মুমিনুল হক, সাকিব, মুশফিকুর রহীম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের সাথে থাকতে পারেন নুরুল হাসান সোহান অথবা নাজমুল হাসান শান্ত।।

সিরিজে দুইটি টেস্ট ও ৩টি করে ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।