আমান কটনের আইপিও লটারির চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ (শেয়ার করুন)

স্টাফ রিপোর্টোর : পুঁজিবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে আবেদন সংগ্রহ করা আমান কটন ফাইবার্সলিমিটেডের আইপিও লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে। পুঁজিবাজার থেকে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলনের অনুমোদন পাওয়া আমান কটনের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) সাড়ে ১১ আবেদন জমা পড়েছে। সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তন, রমনা, ঢাকায় ড্র অনুষ্ঠান শুরু হয়।

লটারির ড্র শেষে বিনিয়োগকারীদের জন্য ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির আইপিওতে দেশী বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ২৯২ কোটি ৩১ লাখ ৮৯ হাজার ২০০ টাকার, ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ২৯ কোটি ৪০ লাখ ৪ হাজার ৮০০ টাকার এবং বিদেশী বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ২৭ কোটি ৫২ লাখ ৮৪ হাজার ৮০০ টাকার আবেদন জমা পড়েছে। যা উত্তোলিত অর্থের চেয়ে ১১.৬৪ গুন। আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়া জন্য লটারির ড্র ওইদিন সকাল সাড়ে ১০ টায় ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউট, আইইবি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে ৩ মে থেকে ১০ জুন পর্যন্ত কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ করা হয়।

জানা গেছে, কোম্পানিটি শেয়ারবাজার থেকে ৮০ কোটি টাকা উত্তোলনের জন্য ২ কোটি ৮ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩৩টি শেয়ার ইস্যু করবে। এর মধ্যে ১ কোটি ২৫ লাখ শেয়ার ৪০ টাকা মূল্যে যোগ্য বিনিয়োগকারীদের নিকট ইস্যু করা হবে। বাকি ৮৩ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩৩টি শেয়ার ৩৬ টাকা মূল্যে (প্রাপ্ত মূল্য ১০ শতাংশ বাট্টায়) আইপিওতে ইস্যু করা হবে।

আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে কোম্পানিটি যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম ক্রয়, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খাতে ব্যয় করবে।

কোম্পানিটির ৩০ জুন ২০১৬ সমাপ্ত অর্থবছরের শেয়ার প্রতি আয় করে ৩.৩৮ টাকা। আর ২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে করে ৩.৪৬ টাকা।

কোম্পানিটির ৩০ জুন ২০১৬ সমাপ্ত আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি নেট অ্যাসেট ভ্যালু (পুনর্মূল্যায়নসহ) হয় ৩৫.৬৩ টাকা। যা ২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরে ৩৯.১২ টাকায় এসে দাড়িয়েছে।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে বিডিং শেষ হওয়া আমান কটন ফাইবার্সের শেয়ারের কাট-অফ প্রাইস নির্ধারিত হয়েছিল ৪০ টাকা। সেই দামের ১০ শতাংশ কমে ৩৬ টাকা দরে আইপিওতে শেয়ার ইস্যু করা হয়।

আমান কটন ফাইবার্স লিমিটেডকে আইপিওতে আনতে ইস্যু ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড। আর ইস্যুর রেজিস্টারের দায়িত্বে আছে প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড।