সাভার পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কোন প্রকল্প গ্রহণ করা হবে না : মেয়র আব্দুল গণি

 

 

সাভার পৌর সভার মেয়র হাজী আব্দুল গণি বলেছেন, সাভার পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর (হাজী আব্বাস আলী) তার এলাকা ইমান্দিপুর, মজিদপুরে সাড়ে ৫ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ করেছেন।

অথচ ৭ নম্বর ওয়ার্ডভুক্ত শাহীবাগ, ডগরমোড়া, স্মরণিকা আবাসিক এলাকা, সিআরপি, রেডিও কলোনীসহ অন্য কোন এলাকায় কাজ করেননি। এ সব এলাকার রাস্তাঘাটের অবস্থা দেখে আমার নিজেরই লজ্জা করে। আগামীতে আমি নিজেই প্রকল্প দিয়ে এসব এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়ন করবো। আমি কথা দিলাম, আগামীতে ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কোন প্রকল্প আর গ্রহণ করা হবে না।

শুক্রবার বাদ জুম’আ সাভার পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ক্লাব সংলগ্ন ভবনে ডগরমোড়া যুব কল্যাণ সংগঠনের উদ্যেগে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেছেন।

পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: হাফিজউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাভার প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক ফুলকি’র সম্পাদক নাজমুস সাকিব, পৌর আওয়ামী লীগ নেতা মো: গিয়াসউদ্দিন, স্থানীয় সমাজসেবক আলহাজ্ব আব্দুস সামাদ মোল্লা, তৌফিজউদ্দিন, আলহাজ্ব মজিবুর রহমান, মো: মামুনুর রশীদ, অধ্যাপক মোহাম্মদ হোসেন রানা প্রমুখ। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন অধ্যাপক মো: রমজান আলী।

সাভার পৌরসভার মেয়র হাজী আব্দুল গণি আরও বলেছেন, এ এলাকা অবহেলিত হওয়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে স্থানীয় জনগণই ভোটের আগে তাদের উন্নয়ন চাননি। তারা তাদের উন্নয়ন চাইলে হাফিজউদ্দিনকে ভোট দিতেন। তিনি বলেন, আগামী ডিসেম্বর মাসের আগেই চাপাইন ও স্মরণিকা আবাসিক এলাকার সড়কের কাজ হবে। চাপাইন সড়ক কলমা পর্যন্ত যাবে। তিনি আরও বলেছেন, আমি সাভার পৌরসভাকে সাজাতে চাই।

এ জন্য আপনাদের জনগণের সহযোগিতা প্রয়োজন। রাস্তা করার দায়িত্ব আমার। আর তা সংরক্ষণের দায়িত্ব আপনাদের। তিনি যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা না ফেলার জন্যও নাগরিকদের প্রতি আহবান জানান।