প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে খালেদাকে কষ্ট দেওয়া হচ্ছে: রিজভী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে আটক রেখে নির্যাতন করে কষ্ট দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টায় নয়াপল্টন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

তিনি অভিযোগ করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগ নেতারা যখন কারাগারে ছিলেন তখন নিজেদের পছন্দমতো বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিলেও খালেদা জিয়াকে সে সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না।

বৃহস্পতিবার(২৮ জুন) কারা চিকিৎসকরা বলেছেন, খালেদা জিয়া অসুস্থ, তাই তাকে আদালতে হাজির করা হয়নি। সুতরাং, সরকারপক্ষই বলছে তিনি অসুস্থ। তারপরও তার চিকিৎসার ব্যবস্থা নেয়নি সরকার।

গাজীপুর সিটি নির্বাচনে কেন্দ্র দখল, এজেন্টদের বাধাসহ বিভিন্ন অনিয়ম তুলে ধরে রিজভী বলেন, কেন্দ্রের ৪শ গজের মধ্যে জনসমাগম থাকার কথা নয়। কিন্তু আওয়ামী লীগের হাজার হাজার ক্যাডার কেন্দ্রের মধ্যে অবস্থান করেছিল। তারা লাইন দিয়ে নৌকায় সিল মেরেছে।

তিনি বলেন, বিরোধীদলের ভোটাররা ভোট দিতে না পারলেও ৪শ গজের মধ্যে ক্যাডাররা অবস্থান নিয়েছে।গণমাধ্যমগুলোতে গাজীপুরের ভোটের অনিয়ম নিয়ে বিভিন্ন নিবন্ধ লেখা হয়েছে।

রিজভী বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশারের বাসভবনে হামলা চালিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। বাসার সব সিসি ক্যামেরা খুলে ফেলে তারা। বাসার ভাড়াটিয়াদের অবিলম্বে বাসা ছেড়ে দেওয়ার হুমকিসহ বাসার লোকজনদের সঙ্গে অশালীন আচরণ করেছে। আমি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।