নো ম্যানস ল্যান্ডে বিজিপির গুলিতে রোহিঙ্গা শিশু গুলিবিদ্ধ

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু সীমান্তের নো ম্যানস ল্যান্ডে (শূন্যরেখা) অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়েছে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি)। এতে আনসার উল্লাহ (১২) নামে এক রোহিঙ্গা শিশু গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার দিকে ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রুর কোনারপাড়া শূন্যরেখায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর ইমন চৌধুরী।।

গুলিবিদ্ধ আনসার উল্লাহ কোনারপাড়ার শূন্যরেখায় অবস্থান করা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা জমির হোসেনের ছেলে। বাম পায়ের উরুতে গুলিবিদ্ধ আনসার উল্লাহকে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প সংলগ্ন রেড ক্রিসেন্ট ফিল্ড হাসপাতালে ভর্তি করে সেবা দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়ে পুলিশ।

জমির হোসেনের পরিবার মিয়ানমারের রাঙ্গাবালি এলাকা থেকে এসেছে বলে ক্যাম্পের রোহিঙ্গা কমিউনিটি নেতা (মাঝি) আরিফ উল্লাহ জানিয়েছেন।

ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর ইমন চৌধুরী রোহিঙ্গাদের বরাত দিয়ে বলেন, বিকেলে কোনারপাড়া শূন্যরেখায় সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়া ঘেঁষে কিছু শিশু খেলছিল। এ সময় মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপি আকস্মিক গুলি ছুড়লে রোহিঙ্গা শিশু আনসারের পায়ে গুলি লাগে। গুলির আওয়াজ পেয়ে ক্যাম্পের বাসিন্দারা বের হয়ে গুলিবিদ্ধ আনসারকে উদ্ধার করে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প সংলগ্ন রেড ক্রিসেন্ট ফিল্ড হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মনজুরুল হাসান খান বলেন, খবর নিয়ে জেনেছি কিছু রোহিঙ্গা শিশু জ্বালানী কাঠ কুড়াতে গিয়ে মিয়ানমারের কাঁটাতারের বেড়ার কাছে চলে গিয়েছিল। এ সময় টহলে থাকা বিজিপির সদস্যরা কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এতে একটি গুলি এক রোহিঙ্গা শিশুর উরুতে লেগেছে।

তিনি বলেন, এটি মিয়ানমার সীমান্তের ঘটনা। বাংলাদেশ সীমান্তের পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

উল্লেখ্য, বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু সীমান্তের নো ম্যানস ল্যান্ডে (শূন্যরেখা) অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের দ্রুত সময়ের মধ্যে ফিরিয়ে নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি)। বিজিপি’র মংডু আঞ্চলিক কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মঈন টুয়ে এ আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) কক্সবাজার আঞ্চলিক কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম রাকিবুল্লাহ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে কক্সবাজারে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও মিয়ানমারের বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) আঞ্চলিক কমান্ডার পর্যায়ে সৌজন্যমূলক পতাকা বৈঠক শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ তথ্য জানান। এ মধ্যেই শূন্যরেখায় গুলি ছুড়লো বিজিপি।