শতকরা ৯৯ ভাগ শিশু এখন বিদ্যালয়ে যায় : শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, নতুন প্রজন্মকে জ্ঞান ও প্রযুক্তিতে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জনের প্রতিযোগিতায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। শিক্ষার মূল লক্ষ্য হচ্ছে নতুন প্রজন্মকে আধুনিক উন্নত বাংলাদেশের নির্মাতা হিসেবে গড়ে তোলা।

তিনি বলেন, বিভিন্ন সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও শিক্ষাক্ষেত্রে যুগান্তকারী পরিবর্তন এসেছে। শতকরা ৯৯ ভাগ শিশু এখন বিদ্যালয়ে আসছে। বছরের প্রথম দিনে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেয়া হয়। এটি সারা পৃথিবীতে একটি অতুলনীয় উদাহরণ। ফলে দরিদ্র পরিবারের ছেলেমেয়েরা পড়ালেখায় উৎসাহিত হচ্ছে।

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ৩৬ জনকে পুরস্কার দেয়া হয়। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ তাদের হাতে পুরস্কারের নগদ অর্থ, ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট তুলে দেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, গত ৯ বছরে সরকার মাদরাসা তথা ইসলামী শিক্ষার উন্নয়নে ব্যাপক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করেছে। স্কুল ও মাদরাসা শিক্ষকদের মধ্যে বেতনের সমতা বিধান করা হয়েছে। মাদরাসা শিক্ষার সঙ্গে আধুনকি শিক্ষার সমন্বয় করা হয়েছে। মাদরাসায় কোরআন-হাদিস ও ফিকাহ বিষয়ের সঙ্গে আইসিটি ও বিজ্ঞান পড়ানো হয়। ফলে মাদরাসা শিক্ষার্থীরাও বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা ও সরকারি চাকুরির সুযোগ পাচ্ছে।

ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আহসান উল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান এবং সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মীর শওকাত আলী বাদশাহ।