গাজীপুর সিটি নির্বাচন ফলাফল যাই হোক জাতীয় নির্বাচনে উত্তাপ ছড়াবে

প্রধান দুদলের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ, নানামুখী প্রচার-প্রচারণা ও সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গাজীপুর সিটি নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে।

মঙ্গলবার সকালে টঙ্গীর ৫৪নং ওয়ার্ডে বশিরউদ্দিন উদয়ন একাডেমি কেন্দ্রে ভোট দেওয়া শেষে সাংবাদিকদের কাছে, বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র থেকে পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার। ভোট সুষ্ঠু হবে কি না, তা নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেছেন তিনি।

অপরদিকে নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে বলে দাবি করেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম। নির্বাচনের ফলাফল যাই হোক না কেন জনপ্রতিনিধি হিসেবে জনগণের রায় মেনে নেওয়ার ঘোষণাও দেন তিনি।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত, গাজীপুর সিটি নির্বাচনের ফলাফল আগামী জাতীয় নির্বাচনে প্রভাব ফেলবে। বিশ্লেষকদের মতে সারাদেশের মানুষসহ বহির্বিশ্বও এ নির্বাচনের দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখবে। একদিকে নির্বাচন যদি সুষ্ঠু হয় তবে বিএনপির প্রার্থী বিজয়ী হলেও জনগণের কাছে ইসির সক্ষমতা নিয়ে কিছুটা হলেও আস্থা বাড়বে। যা আগামী নির্বাচনে সরকারের জন্য পজিটিভ একটি দিক।

অপরদিকে নির্বাচন কমিশন নির্বাচন সুষ্ঠু করতে ব্যর্থ হলে ইসির সক্ষমতা নিয়ে জনমনে ব্যাপক প্রশ্ন উঠবে বলে অভিমত বিশ্লেষকদের।

এদিকে গত ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের আগে থেকে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আন্দোলন করে আসা বিএনপি বরাবর ইসির সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে আসছে। ফলে গাজীপুর সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে বিএনপির এ দাবির যৌক্তিকতা বৃদ্ধি পাবে।

তাই গাজীপুর সিটি নির্বাচনকে ইসির জন্য এসিড পরীক্ষা বলেও মন্তব্য করেন দেশের বিশিষ্ট রাজনৈতিক বিশ্লেষক মাহফুজ উল্লাহ। তাই স্বভাবতই বুঝা যাচ্ছে এ নির্বাচন জাতীয় নির্বাচনে বড় ধরনের প্রভাব ফেলবে এবং নির্বাচনে ফলাফল যাই হোক না কেন তা আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য নানা সমিকরণ সৃষ্টি করবে।

আরেক বিশিষ্ট রাজনৈতিক বিশ্লেষক মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, সকাল থেকে যা খবর পাচ্ছি তাতে নির্বাচন সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ হওয়ার মতো কোনো লক্ষণ দেখছি না। সঙ্গত কারণেই এই নির্বাচন আগামী জাতীয় নির্বাচনে উত্তাপ ছড়াবে। বিরোধীপক্ষ তাদের নিরপেক্ষ সরকারের দাবির সপক্ষে জোরালো প্রমাণ উপস্থাপন করবে, এতে কোনো সন্দেহ নেই। আগেই বলে এসেছি নির্বাচন কমিশন মেরুদণ্ডহীন। এদের কাছে সুষ্ঠু নির্বাচন আশা করাও অর্থহীন।