উৎসব ভাতা পাননা গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা

স্টাফ রিপোর্টার: গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কোন উৎসব ভাতা প্রদান করা হয় না। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারা।
জানা গেছে, মুসলমানদের দুটি বড় ধর্মীয় উৎসব, হিন্দুদের দূর্গা পুজা, খৃষ্টানদের বড় দিন ও অন্যান্যদের ধর্মীয় উৎসবসমূহে কোন উৎসব ভাতা দেয়া হয় না। এ নিয়ে শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা বিভিন্ন সময়ে আবেদন করলেও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে মানবিক এ বিষয়টি বাস্তবায়িত হচ্ছে না। ফলে ধর্মীয় উৎসবের আনন্দ ম্লান হয়ে যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের।
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাকাল ১৯৯৮ সাল থেকে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে কোন প্রকার উৎসব ভাতা প্রদান করা হয়নি। এখানে বছরে ছুটি মাত্র ১৪ দিন। পাশাপাশি চাকুরী শেষে নেই কোন পেনশনের সুবিধা বা গ্রাচুইটি।
শিক্ষক-কর্মকর্তারা এই প্রতিবেদককে অভিযোগ করে বলেন, যেখানে গার্মেন্টসের সকল প্রকার কর্মচারীরা বোনাস বা উৎসব ভাতা পান সেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের মত একটি প্রতিষ্ঠানের চাকুরীজীবীরা কোন সুবিধা পাবেন না এটা অমানবিক ও বে-আইনী কিনা ভেবে দেখা দরকার।
তারা আরো বলেন, সকল সরকারী ও বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিভাবক হলো ইউ জি সি। যেখানে সকল সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে শুধু ২টি উৎসব ভাতা নয় বৈশাখী ভাতা ও বিজয় দিবস ভাতা দিচ্ছেন সরকার, সেখানে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের চাকুরীজীবীদের ধর্মীয় উৎসব ভাতা দেয়ার ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিতে পারেন। তাহলে ঈদ উদযাপনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উৎসব ভাতা পাওয়ার সম্ভাবনা ছিলো।