পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মোশাররফের নাগরিকত্ব বাতিল

ফুলকি অনলইন: পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট ও সেনাপ্রধান পারভেজ মোশাররফের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইসি) ও পাসপোর্ট বাতিল করেছে দেশটির সরকার। সম্প্রতি কয়েকটি গণমাধ্যম খবরে এ তথ্য জানানো হয়।
এর আগে দেশটির তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান নাসির উল মুলক অবিলম্বে মোশাররফের এনআইসি বাতিলের নির্দেশ দেন।
এরপরই গত শনিবার তাঁর এনআইসি বাতিল করে পাকিস্তানের ন্যাশনালস ডেটাবেইস অ্যান্ড রেজিস্ট্রেশন অথোরিটি। আর এনআইসি বাতিলের পর পাসপোর্টের তেমন মূল্য থাকে না।
মোশাররফ বর্তমানে দুবাই আছেন। তাই দুবাই চাইলে তাঁকে বিতাড়িত করতে পারে।
এদিকে দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের খবরে বলা হয়েছে, এই সাবেক প্রেসিডেন্ট এখন রাজনৈতিক আশ্রয় চাইতে পারেন। অথবা পাকিস্তানে ফিরতে চাইলে তাঁকে বিশেষ অনুমতি নিতে হবে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, চলতি বছরের মার্চে বিশেষ আদালত মোশাররফের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় কেন্দ্রীয় সরকারকে তাঁর পাসপোর্ট ও এনআইসি বাতিলের নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশে আদালত আরও বলেন, যদি মোশাররফ লিখিত আবেদন জমা দিতে ব্যর্থ হন, তাহলে পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও সরকারের অন্যান্য সংস্থা তাঁকে গ্রেপ্তারের জন্য ইতিবাচক পদক্ষেপ নিতে পারে।
এর আগে সুপ্রিম কোর্ট মোশাররফকে পাকিস্তানে ফিরে আসতে বলেছিলেন। কারণ, তাঁর বিরুদ্ধে কয়েকটি মামলার শুনানি চলছে। কিন্তু তিনি হাজির হননি।
২০০৭ সালে প্রেসিডেন্ট থাকার সময় বেআইনিভাবে সংবিধান বাতিল ও জরুরি অবস্থা জারির দায়ে ২০১৪ সালের মার্চে অভিযুক্ত হন মোশাররফ।