‘অনিরাপদ স্মৃতিসৌধ’! ভ্যান চালকের লাশ উদ্ধার

আশুলিয়া সংবাদদাতা: আশুলিয়ায় নয়ন (৩০) নামে এক ভ্যান চালককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। হত্যা পর গতকাল রাতে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে জাতীয় স্মৃতিসৌধের বাউন্ডারীর অভ্যন্তরে ক্যানেলে লাশ ফেলে দেয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। পরে এলাকাবাসী লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে শুক্রবার সকাল ১০টায় ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে আশুলিয়া থানা পুলিশ।
নিহত ভ্যান চালক নয়ন যশোর জেলার ঝিকরগাছা থানাধীন বাজে নাবারণ এলাকার গণি মিয়া ও আমেনা বেগমের ছেলে। সে আশুলিয়ার নিরিবিলি আমতলা এলাকার জাহাঙ্গীরের বাড়িতে ভাড়ায় থেকে ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতো। তার স্ত্রী পলি আক্তার ডিইপিজেড এর একটি পোশাক কারখানায় চাকুরি করে। সুমাইয়া(৯) ও সুরাইয়া(৪) নামে তার দুই মেয়ে রয়েছে।
নিহতের মা আমেনা বেগম জানান, কারো সাথে আমার ছেলের শত্রুতা ছিল না। গতকাল রাতে রাত আড়াইটায়
বাইপাইল থেকে মাল আনতে গিয়ে আর বাসায় ফেরেনি।’
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীসুত্রে জানা যায়, সকাল ১০টায় স্মৃতিসৌধের পাশর্^বর্তী বাড়ির মালিকরা এবং চলাচলরতরা কচুরিপানার মধ্যে দুটো পা উপরে তোলা দেখতে পায়। এরপর তারা থানা পুলিশ ও স্মৃতিসৌধের দায়িত্বরতদের বিষয়টি জানায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করলে স্থানীয়রা ও নিহতের স্বজনরা লাশটি শনাক্ত করেন। পরে লাশটি ময়না তদন্তের জন্যে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।
এদিকে জাতীয় স্মৃতিসৌধের বাউন্ডারীর অভ্যন্তরের ক্যানেলের কচুরিপানার মধ্যে লাশ গুমের ঘটনায় স্মৃতিসৌধের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অনেকেই।
এ ব্যাপরে জানতে চাইলে স্মৃতিসৌধের ইনচার্জ মিজান বলেন, ‘স্মৃতিসৌধের সামনের অংশ থেকে স্মৃতিস্তম্ভ পর্যন্ত মূলত নিরাত্তায় নিয়োজিতরা দায়িত্ব পালন করেন। পিছনে বাউন্ডারী সংলগ্ন ওই এলাকায় মূলত সার্বক্ষণিক দেখভালের জন্যে কোন নজর থাকে না। তাছাড়া দিনের বেলায় যতটুকু দেখা হয় রাতের বেলা ওই স্থানটি নজরদারির আওতায় থাকে না। এ চিন্তা করেই হয়ত হত্যাকারীরা লাশটি ওই ক্যানেলের কচুরিপানার মধ্যে ডুবিয়ে রাখে।’
এ বিষয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত উপ পরিদর্শক ফরহাদ জানায়, ধারনা করা হচ্ছে কোন ছিনতাইকারি গ্রুপ ভ্যান চালককে হত্যা করে ভ্যানটি ছিনতাই করে নিয়ে যায়। নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত ও জখমের চিহ্ন রয়েছে।
জানতে চাইলে আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল বলেন, আমি বিষয়টি এখনও জানতে পারিনি। লাশটি উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয়েছে। ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। তবে ভ্যানটি উদ্ধার হয়নি।