আশুলিয়ায় দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে সেনাবাহিনীর সাবেক সার্জেন্টের মৃত্যু

আশুলিয়ার গাজীর চটে কবরস্থান রোডে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে সেনাবাহিনীর সাবেক সার্জেন্ট আরিফুল ইসলাম চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনায় নিহতরে স্ত্রী বিউটি আক্তার জুঁই অজ্ঞাতদের আসাসী করে আশুলিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। সোমবার (৪ জুন) ভোর রাতে ঢাকা ক্যান্টনমেন্টের সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাদীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। নিহত সেনা সদস্য আরিফুল ইসলাম গোপালগঞ্জ সদর থানার চন্দ্রদিগুলী গ্রামের মৃত মতিউর রহমানের ছেলে। বর্তমানে তিনি পরিবারসহ আশুলিয়ার কবরস্থান রোডে এনামুল হকের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। নিহতের ভাই তরিকুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান, আরিফুল ইসলাম এখানে বেসরকারি একটি বহুতল নির্মাণাধীন ভবনের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন। পাশাপাশি ভবনের জন্য বালু ও পাথর সরবরাহ করে আসছিলো। গত শনিবার রাতে অনুমান আড়াইটার দিকে কেউ ফোন করে জানায়, কাজের জন্য বালু এসেছে। ফলে তিনি বের হয়ে সেখানে যান। পরে ভোরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় পথচারীরা উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। তার সারা শরীরের আঘাতে চিহৃ রয়েছে ও পেঠে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। এ বিষয়ে নিহতের চাচাতো ভাই ও আশুলিয়া থানার এস আই মো. নয়ন ভুইয়া জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কোন ছিনতাইয়ের ঘটনা না। তবে কোন পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এই ঘটনা ঘটতে পারে। তবে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল আউয়াল জানান, নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। সেই রাতে যে নম্বরগুলো থেকে ফোন এসেছিলো, তাদের খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি বিভিন্ন বিষয় মাথায় রেখে মামলাটি দ্রুত তদন্ত করা হচ্ছে।