খালেদাসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জ শুনানি হয়নি

IFrame

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে বাসে পেট্রোল বোমা মেরে মানুষ হত্যার অভিযোগে বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় চার্জগঠনের বিষয়ে শুনানি হয়নি।
রোববার পুরান ঢাকার বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার ছয় নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক এস মোহাম্মদ আলী আসামিপক্ষের সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে চার্জ শুনানির নতুন তারিখ ১২ জুলাই ধার্য করেন।
খালেদা জিয়ার আইনজীবী হান্নান ভূঁইয়া জানান, রোববার মামলাটি চার্জ শুনানির জন্য ধার্য ছিল। কিন্তু মামলাটিতে খালেদা জিয়ার পক্ষে হাইকোর্ট মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেছেন। এজন্য আমরা চার্জ শুনানি পেছানোর জন্য সময়ের আবেদন করি। আদালত সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে পরবর্তী শুনানির দিন ১২ জুলাই ঠিক করেছেন।

এদিন খালেদা জিয়ার পক্ষে জিয়া উদ্দিন জিয়া, আব্দুল খালেক মিলন প্রমুখ আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ২৩ জানুয়ারি রাত ৯টায় যাত্রাবাড়ীর ডেমরা রোডের মাতুয়াইল কাউন্সিলর অফিসের সামনে গ্লোরী পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোলবোমা হামলায় দগ্ধ হন ৩১ জন। এদের মধ্যে ঢাকা মেডিক্যালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নূর আলম নামে একজন মারা যায়।
ঘটনার পরদিন পরিকল্পনাকারী হিসেবে বিএনপির কেন্দ্রীয় ১৮ জন নেতাসহ যাত্রাবাড়ী ছাত্রদল শাখা, শ্রমিকদলসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ৫০ জন নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখ করে মামলাটি দায়ের করেন যাত্রাবাড়ী থানার এসআই কেএম নুরুজ্জামান। খালেদা জিয়ার নাম এজাহারে আসামির তালিকায় উল্লেখ করা না থাকলেও, এজাহারের বক্তব্যের মধ্যে হুকুমদাতা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল।
মামলাটি তদন্ত করে ওই বছরের ১৮ মে ডিবি পুলিশের এসআই জাহিদুল ইসলাম খালেদা জিয়াসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।
এদিকে একই ঘটনায় হত্যা এবং বিশেষ ক্ষমতা আইনের আরো দুটি অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। ডিবি পুলিশের এসআই বশির আহমেদ চার্জশিটগুলো দাখিল করেন। চার্জশিটে উল্লেখযোগ্য আসামিদের মধ্যে রয়েছেন-বিএনপি নেতা এমকে আনোয়ার, শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, আমান উল্লাহ আমান, হাবিবুন নবী খান সোহেল, সালাউদ্দিন আহমেদ, বরকতউল্লাহ  বুলুসহসহ আরো অনেকে।