আশুলিয়ায় বিশুদ্ধ খাদ্য চাই সংগঠনের যাত্রা শুরু

আশুলিয়া ব্যুরো : খাদ্য মানুষের অন্যতম মৌলিক অধিকার। তবে বিষাক্ত খাদ্য একটি নিরব ঘাতক। এখনই প্রয়োজন সর্বস্তরের জনসচেতনতা।

বিশুদ্ধ খাদ্য চাই সংগঠনের উদ্বোধনী আয়োজনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএসএমএমইউ এর ফার্মাকোলজী বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ মোঃ সায়েদুর রহমান এসব কথা বলেন।

‘মরতে নয়, সুস্থ্য জীবনের জন্য চাই বিশুদ্ধ খাবার’ এই স্লোগানকে ধারণ করে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধের প্রধান ফটকের সামনে থেকে র‌্যালী বের করেন বিশুদ্ধ খাদ্য চাই/Demand For Pure Food এর সদস্যগণ। র‌্যালীটি প্রধান সড়কের হোটেলগুলোর সামনে দিয়ে ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড সুপার মার্কেট সংলগ্ন কাঁচাবাজার প্রদক্ষিণ করে স্মৃতিসৌধের সামনে এসে শেষ হয়।

৩১ মে বৃহস্পতিবার সংগঠনের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত এ র‌্যালীর পাশাপাশি সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবিগণ ফলমূল বিক্রেতা, হোটেল ব্যবসায়ী, শাক-সবজি, মাছ-মাংস বিক্রেতা, রাস্তার পাশে খোলাখাবার (বিভিন্ন ধরনের শরবত, ফুচকা-চটপটি, ঝালমুড়ি, ইফতারসামগ্রী) বিক্রেতাদের মাঝে ভেজাল খাদ্য চেনার সহজ উপায় সম্বলিত লিফলেট বিতরণ করেন। ভেজাল খাবারের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এ কর্মসূচী পালন করেন তারা।

গণ বিশ্ববিদ্যালয় এবং গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের ছাত্র-শিক্ষকবৃন্দ র‌্যালীতে অংশগ্রহণ করেন। বায়োকেমিস্ট, ফার্মাসিস্ট এবং ডাক্তারসহ স্বাস্থ্যবিষয়ক বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার ব্যক্তিবর্গ এ মহান খাদ্য আন্দোলনের উদ্যোগ নেয়ায় অতি দ্রুত এ সংগঠনের লক্ষ্য-উদ্দ্যেশ্য পূরণ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন বক্তারা।

অতি শীঘ্রই সারাদেশে বিশুদ্ধ খাদ্য চাই সংগঠনের কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানান “বিশুদ্ধ খাদ্য চাই” এর আহবায়ক, গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ শাকিল মাহমুদ। তিনি আরো বলেন, বিনামূল্যে খাদ্যবিক্রেতা বা খাদ্য ব্যবস্থাপনায় নিয়োজিত ব্যক্তিদের নিরাপদভাবে খাদ্য সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াকরণ এবং পরিবেশন বিষয়ক  ট্রেনিং এর ব্যবস্থা করা হবে।

সংগঠনের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব বায়োকেমিস্ট ডঃ মোঃ ফুয়াদ হোসেন বলেন, সংগঠনের চলার শুরু হতেই আমরা জনপ্রতিনিধি সহ সকলের প্রচুর সাড়া পাচ্ছি। বিভিন্ন মহল থেকে আমাদের সাধুবাদ জানানো হয়েছে। নিরাপদ খাদ্য অধিকার নিশ্চিত করা শুধুমাত্র সরকারের দায়িত্ব নয়, দেশের সুনাগরিক হিসেবে আমরা সরকারের সাথে একযোগে কাজ করে যাব।