নিম্নচাপ কেটে গেছে, নেমে গেল সতর্কতা সঙ্কেত

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ক্রমশ নিম্নচাপটি দুর্বল হয়ে উপকূল অতিক্রম করায় দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোতে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সঙ্কেত নামিয়ে ফেলতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

অধিদপ্তর বুধবার সকালে জানিয়েছে, সাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপটি মিয়ানমারের রাখাইন উপকূল অতিক্রম করে দুর্বল হয়ে পড়েছে।

এটি এখন স্থল নিম্নচাপ আকারে মিয়ানমারের মধ্যাঞ্চলে অবস্থান করছে। এটি আরও উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে আরও দুর্বল হয়ে পড়বে।

উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা ও সমুদ্র বন্দরগুলোর উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা না থাকায় চার সমুদ্র বন্দরকে সতর্কতা সঙ্কেত নামিয়ে ফেলতে বলা হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সঙ্কেত দেখাতে নির্দেশনা দিয়েছিল আবহাওয়া অধিদপ্তর। সঙ্কেত নামালেও বুধবার দুপুর পর্যন্ত উত্তর বঙ্গোপসাগর অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। এর আগে বঙ্গোপসাগরে এই লঘুচাপের প্রভাবে চট্টগ্রাম ও তৎসংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় বৃষ্টির আভাস দিয়েছিল আবহাওয়া অধিদপ্তর। মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ঢাকায়, ৩৫ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সকাল ৬টায় ঢাকার বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৮৪%; বিকালে ছিল ৬৩%। ফলে রাজধানীসহ দেশের অনেক এলাকায় ভ্যাপসা গরম ছিল গত কয়েক দিনের মতোই।

তবে বৃষ্টি বাড়লে দুয়েক দিনের মধ্যে পরিস্থিতি কিছুটা সহনীয় হয়ে আসতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদ এ কে এম রুহুল কুদ্দুস।

বুধবারের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে- রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের দুয়েক জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া ও বিজলী চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।