পছন্দের পিআরও নিয়োগ দিতে পারবেন না মন্ত্রীরা

সুনির্দিষ্টভাবে পছন্দের কোনো কর্মকর্তার নাম উল্লেখ করে নিজের জনসংযোগ কর্মকর্তা (পিআরও) নিয়োগ দিতে তথ্য মন্ত্রণালয়কে প্রস্তাব দিতে পারবেন না মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীরা। পিআরওদের নিয়োগ ও পদায়ন এবং তাদের কাজের সমন্বয় ও জবাবদিহিতা রক্ষার স্বার্থে এ সংক্রান্ত নতুন পরিপত্র জারি করেছে তথ্য মন্ত্রণালয়।

পরিপত্র অনুযায়ী, এখন থেকে কোনো মন্ত্রণালয় বা বিভাগের চাহিদার ভিত্তিতে তথ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও গণযোগাযোগ-১ শাখা বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দফতর ও সংস্থায় পিআরও নিয়োগ দেবে।

পরিপত্রে বলা হয়েছে, ‘বিসিএস তথ্য ক্যাডারদের স্বল্পতার কারণে বাংলাদেশ বেতারের বিসিএস ক্যাডারভুক্ত কর্মকর্তাদের জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে পদায়ন বা সংযুক্তি দেয়া হয়। পিআরও হিসেবে পদায়তকৃতদের প্রধান তথ্য কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা থাকলেও বেতার থেকে পিআরও হিসেবে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের মধ্যে কোনো কোনো ক্ষেত্রে প্রধান তথ্য কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ ও সমন্বয়ের অভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে।’

বেতার থেকে নিয়োজিত জনসংযোগ কর্মকর্তাদের সমন্বয়কারী কে হবেন সে বিষয়ে ইতোপূর্বে কোনো সুস্পষ্ট নির্দেশনা না থাকায় তাদের কাজের সমন্বয় ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণে সমস্যা হচ্ছে বলেও পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।

পিআরও নিয়োগ ও পদায়নে অস্পষ্টতা দূর করতে পরিপত্রে বলা হয়, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দফতর, সংস্থায় এখন থেকে জনসংযোগ কর্মকর্তা সংযুক্তিকরণ, পদায়ন ও প্রত্যাহার তথ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও গণযোগাযোগ-১ শাখা থেকে পরিচালিত হবে। কোনো মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দফতর, সংস্থায় জনসংযোগ কর্মকর্তার চাহিদা থাকলে সরাসরি কোনো ক্যাডারের এবং কোনো কর্মকর্তার নাম সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ না করে তথ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা পদায়নের চাহিদা প্রেরণ করবেন।

এতে আরও বলা হয়, কোনো মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংস্থা বা দফতর থেকে জনসংযোগ কর্মকর্তার চাহিদা পাওয়া গেলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তথ্য অধিদফতর থেকে উপযুক্ত কর্মকর্তাদের তালিকা চাওয়া হবে। ওই তালিকা থেকে মন্ত্রণালয় মনোনয়ন দিয়ে পিআরও সংযুক্তি বা পদায়ন করবে।

তথ্য অধিদফতর থেকে বিসিএস (তথ্য-সাধারণ) ক্যাডার থেকে উপযুক্ত কর্মকর্তা পাওয়া না গেলে বেতার থেকে তথ্য (বেতার) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের মধ্য থেকে তালিকা চাওয়া হবে। ওই তালিকা থেকে মনোনয়ন দিয়ে পিআরও হিসেবে সংযুক্তি বা পদায়ন করা হবে বলে পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।

পরিপত্রে বলা হয়েছে, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সকল জনসংযোগ কর্মকর্তার রিপোর্টিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন, তাদের কাজের সমন্বয় এবং কাজের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করবেন। পিআরওদের সঙ্গে মাসে কমপক্ষে একটি সভা করবেন এবং কাজের মান ও গতিশীলতা বাড়াতে ইন সার্ভিস প্রশিক্ষণ এবং দেশে-বিদেশে প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করবেন।

তথ্য অধিদফতরের একজন কর্মকর্তা জানান, সাধারণত মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রীদের পছন্দের ভিত্তিতে তথ্য ক্যাডারের কর্মকর্তাদের জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দিয়ে আসছিল তথ্য মন্ত্রণালয়। অনেক সময় পছন্দের মন্ত্রীর পিআরও নিয়োগ পেতে কোনো কোনো কর্মকর্তা প্রভাবশালীদের দিয়ে তদবিরেও নামেন। এই প্রেক্ষাপটে তথ্য অধিদফতরের পক্ষে পিআরওদের নিয়ন্ত্রণ করাও দুরুহ হয়ে পড়েছে। অনেক পিআরও পেশাগত দিকে খেয়াল না করে নিজের খেয়ালখুশি মতো চলছেন। এ জন্যই এ পরিপত্র করা হয়েছে।