ধামরাইয়ে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ

ধামরাই উপজেলার ঘোড়াকান্দা এলাকায় এক প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ করেছে এক পুলিশ সদস্যের বাবা মহসিন (৫৫)। রোববার সকালে ধর্ষক মহাসিন মিয়ার মেশিন ঘরে তাকে ধর্ষণ করে। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক পলাতক রয়েছে। ধর্ষক মহাসিন মিয়া ঘোড়াকান্দা গ্রামের মৃত আব্দুল আলীর ছেলে। এ ঘটনায় প্রতিবন্ধীর ভাই স্থানীয় ইউপি সদস্যের কাছে বিচার চেয়েছেন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, গতকাল সকালে ধর্ষক মহাসিন মিয়া বিলের জমিতে তার মেশিন ঘরে কাজ করছিল। এসময় পাশের গ্রাম ভাটারখোলা গ্রামের এক প্রতিবন্ধী তরুণী তার মেশিন ঘরের পাশে ঘাস কাটছিল। আর সেই সুযোগে মহাসিন তরুণীকে মেশিন ঘরের ভিতর নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় স্থানীয়রা ধর্ষণের ঘটনা জানতে পারলে এলাকা থেকে পালিয়ে যায় ধর্ষক মহাসিন। ধর্ষক মহাসিন মিয়ার ছোট ছেলে রোমান পুলিশ কনেস্টবল পদে চাকরি করেন। পরে তরুণীর ভাই ও পরিবারের সদস্যরা মহাসিনের বাড়িতে গিয়ে তাকে খোঁজাখুজি করে তাকে পায়নি।

এ ব্যাপারে প্রতিবন্ধীর ভাই ইয়াছিন মিয়া জানান, ধর্ষককের শাস্তির দাবি করে বিচার চেয়েছি স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বারের কাছে।এখন পর্যন্ত আমি এর কোন বিচার পাইনি।

নান্নার ইউনিয়ন ১নং ওর্য়াডের মেম্বার অছিমুদ্দিন জানান, প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ করেছে মহাসিন এলাকার অনেকে দেখেছে বলে আমাকে জানিয়েছে। তারপর তরুণীর ভাই বিচারও চেয়েছে। মহসিনকে কোথাও পাওয়া যাচ্ছে না। আর এই বিচার আমার পক্ষে করা সম্ভব না । এ বিচার করার জন্য প্রশাসন আছে।

ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিজাউল হক বলেন, থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।